ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ আষাঢ় ১৪২৫, ২১ জুন ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

‘একটি ফ্রিজ কিনে আমার এখন ঘর ভর্তি ওয়ালটন পণ্য’

রেজাউল করিম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-১৬ ৬:০০:৩৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-১৬ ৬:০০:৩৪ পিএম
ফরিদা ইয়াসমিন ও তার পরিবারের সদস্যদের হাতে লাখ টাকার পুরস্কার হস্তান্তর করছেন ওয়ালটনের কর্মকর্তারা।

রেজাউল করিম, চট্টগ্রাম : লাখ টাকার পুরস্কার পাওয়া কতোটা আনন্দের তা ভাষায় প্রকাশ করে বোঝানো সম্ভব নয়। ওয়ালটন থেকে ফ্রিজ কিনে পুরস্কার পাবো এই চিন্তা করিনি। পুরস্কার পাওয়া যেতে পারে এই বিষয়টিও জানা ছিলো না। কিন্তু ২২ হাজার ৮শ’ টাকায় ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে অবিশ্বাস্যভাবে লাখ টাকার পুরস্কার জিতে গেলাম। একটিমাত্র ফ্রিজ কিনে আমার বাসায় এখন ঘর ভর্তি ওয়ালটন পণ্য- এ কথাগুলো বলছিলেন চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ পানওয়ালা পাড়া এলাকা বাসিন্দা ফরিদা ইয়াসমিন।

প্রথমবারের মতো ফরিদা ইয়াসমিন (৫২) তার বাসার জন্য একটি ফ্রিজ কিনে লাখ টাকার পুরস্কার জিতে নিলেন। তার স্বামী একজন ক্ষুদ্র পান ব্যবসায়ী। সাংসার জীবনে তার বাসায় কখনো ফ্রিজ ছিলো না। দীর্ঘদিন ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সঞ্চয় করে একটি ফ্রিজ কিনবেন বলে ঠিক করেন ফরিদা।

গত রোববার চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ ওয়ালটন প্লাজা থেকে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের একটি ফ্রিজ কিনতে আসেন ফরিদা ও তার স্বামী। ভালো মানের ফ্রিজ মানেই ওয়ালটন এই বিষয়টি মাথায় ছিলো তার। কিন্তু ওয়ালটন ফ্রিজ কিনলে কোন পুরস্কার পাবেন বা পেতে পারেন- এই সম্পর্কে তার কিছুই জানা ছিলো না। কিন্তু ২২ হাজার ৮০০ টাকা দিয়ে ১১ সিএফটি একটি ফ্রিজ কিনে টাকা পরিশোধ করে ক্যাশ মেমো করার পরই প্লাজা ম্যানেজার তাকে জানান ফরিদা একলাখ টাকা পুরস্কার জিতেছেন। একই সময়ে ফরিদা নিজের মোবাইল ফোনেও লাখ টাকা পুরস্কার জিতে যাওয়ার টেক্সট মেসেজ দেখতে পান।



মঙ্গলবার বিকেলে আগ্রাবাদ ওয়ালটন প্লাজায় ফরিদা ও তার পরিবারের সদস্যদের হাতে লাখ টাকার পুরস্কার তুলে দেন ওয়ালটনের কর্মকর্তারা। পুরস্কার দেওয়ার সময় ওয়ালটনের কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের চট্টগ্রাম (পশ্চিম) এরিয়া ম্যানেজার ইমরুজ হায়দার খান, এরিয়া ম্যানেজার (পূর্ব) ফাহাদ আহাম্মেদ, চট্টগ্রাম বিভাগের সেলফোন মনিটরিং কর্মকর্তা মোঃ মোর্শেদ তালুকদার, রাইজিংবিডি’র চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান রেজাউল করিম, লালখান বাজার ওয়ালটন প্লাজার ইনচার্জ রাহাত খান সুমন, সিটি গেইট প্লাজার ইনচার্জ মোঃ মহিন উদ্দিন (মহিন), হালিশহর ওয়ালটন প্লাজার ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম, আগ্রাবাদ প্লাজার ইনচার্জ মোহাম্মদ শাহীন, জিইসি মোড় প্লাজার ইনচার্জ রকিবুল হুদা, ইপিজেড প্লাজার ইনচার্জ মোঃ মহিউদ্দিন, নেভি গেইট প্লাজার ইনচার্জ আবদুল মজিদ, চকবাজার প্লাজার ইনচার্জ মোঃ জাকির হোসেন, স্টেশন রোড প্লাজা ইনচার্জ জয়পাল বড়–য়া, চাক্তাই প্লাজার ইনচার্জ রামপ্রসাদ সরকার। 

পুরস্কার গ্রহণ করে ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, ‘আমার বাসায় আগে কোন ফ্রিজ ছিলো না। ফ্রিজ কেনার সামর্থও ছিলো না। স্বামী একজন পান দোকানি। কোন রকমে সংসার চলে। এরই মধ্যে অনেক কষ্টে টাকা জমিয়ে ওয়ালটন থেকে একটি ফ্রিজ কেনার জন্য এসেছিলেন। ফ্রিজ কিনে টাকা পরিশোধ করার পরই জানতে পারলেন তিনি একলাখ টাকা পুরস্কার পেয়েছেন।’



ফরিদা বলেন, ‘আমি একটি ফ্রিজ কিনে লাখ টাকার পুরস্কার হিসেবে পেয়েছি একটি ডিপ ফ্রিজ, একটি ল্যাপটপ, ৩২ ইঞ্চি এলইডি টেলিভিশন, ৬টি মোবাইল ফোন, ১টি সিলিং ফ্যান। এসব পণ্যের মধ্যে মোবাইল ফোনসেটগুলো মেয়ে, বোন, মেয়ের জামাই ও অন্যদের উপহার দেবেন। এ ছাড়া ল্যাপটপটি তার স্কুল ছাত্রী কন্যা ব্যবহার করবেন। পুরস্কার হিসেবে পাওয়া এলইডি টিভি ও ডিপ ফ্রিজটি নিজের বাসায় ব্যবহার করা হবে।’

পুরস্কার গ্রহণের সময় ফরিদা ইয়াসমিনের সঙ্গে ছিলেন তার বাবা হাজী আনোয়ার উদ্দিন, মা লায়লা বেগম, ভাই মিজানুর রহমান, ভাইয়ের স্ত্রী শাকিলা জহুর, মেয়ের জামাই আবদুল হালিম।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ জানুয়ারি ২০১৮/রেজাউল/শাহনেওয়াজ

Walton Laptop
 
   
Walton AC