RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৫ ১৪২৭ ||  ০৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

২৩ দিন অবরুদ্ধ থাকার পর মুক্ত হয়েছিল ধানুয়া কামালপুর

জামালপুর সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:১৩, ৪ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:১৬, ৪ ডিসেম্বর ২০২০
২৩ দিন অবরুদ্ধ থাকার পর মুক্ত হয়েছিল ধানুয়া কামালপুর

ধানুয়া কামালপুর মুক্ত দিবস আজ। ভারতের মেঘালয় রাজ্যের পাহাড় ঘেঁষা জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার ধানুয়া কামালপুর ১৯৭১ সালের ৪ ডিসেম্বর হানাদার মুক্ত হয়।

মুক্তিযুদ্ধকালে ধানুয়া কামালপুর ছিলো ১১ নং সেক্টরের আওতায়। যুদ্ধে এ সেক্টরের ভূমিকা ছিলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যুদ্ধের শুরুতেই হানাদার বাহিনী এ এলাকায় গড়ে তোলে শক্তিশালী ঘাঁটি। আর পাক হানাদার বাহিনীর এ ঘাঁটি দখলের মধ্য দিয়ে শেরপুর, জামালপুর, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল ও দেশের উত্তর মধ্যাঞ্চলের জেলাগুলোসহ ঢাকা বিজয়ের পথ সহজ হয়ে যায়।

১১ নং সেক্টরের সদর দপ্তর ছিল ধানুয়া কামালপুর থেকে ২ কিলোমিটার দূরে ভারতের মহেন্দ্রগঞ্জ থানায়।  আর সীমান্তের এপারেই ধানুয়া কামালপুরে ছিল পাক হানাদারবাহিনীর শক্তিশালী ঘাঁটি। রণকৌশলের দিক থেকে তাই মুক্তিযোদ্ধাদের নিকট ধানুয়া কামালপুর ঘাঁটি দখল করা ছিল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

কামালপুর বিজয়ের লক্ষ্যে একাত্তরের ১১ নভেম্বর পাক সেনাদের শক্তিশালী ঘাঁটিতে আক্রমণ শুরু করে মুক্তিযোদ্ধারা। মুক্তিযোদ্ধাদের তুমুল আক্রমণে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে এ ঘাঁটির হানাদাররা।

২৩ দিন অবরুদ্ধ থাকার পর ৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় হানাদার বাহিনীর অফিসার আহসান মালিকের নেতৃত্বে ১৬২ জন সেনার একটি দল যৌথবাহিনীর কাছে আত্মসর্মপণ করতে বাধ্য হয়। শত্রুমুক্ত হয় ধানুয়া কামালপুর।

সেলিম আব্বাস/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়