Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ৩০ জুলাই ২০২১ ||  শ্রাবণ ১৫ ১৪২৮ ||  ১৮ জিলহজ ১৪৪২

সিলেটে ট্রাফিক সার্জেন্টকে মারধরের অভিযোগে দুই ভাই গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:৫৬, ১২ জুন ২০২১   আপডেট: ০৮:১৯, ১৩ জুন ২০২১
সিলেটে ট্রাফিক সার্জেন্টকে মারধরের অভিযোগে দুই ভাই গ্রেপ্তার

সিলেট নগরের চৌহাট্টা পয়েন্টে ট্রাফিক সিগন্যাল অমান্য করে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় বাঁধা দেয়ায় দুই সহোদর মিলে ট্রাফিক সার্জেন্টকে মারধর করেছেন।

শনিবার (১২ জুন) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সৌরভ চৌধুরী (২১) ও তার ভাই বাদল চৌধুরীকে (২৯) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা শহরতলীর টুকেরবাজার পীরপুর গ্রামের সন্তোষ চৌধুরীর ছেলে।

মারধরকালে সৌরভ নিজেকে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সাধারণ সম্পাদক আজাদুর রহমান আজাদের অনুসারী ছাত্রলীগ কর্মী বলে পরিচয় দিয়ে ওই সার্জেন্টকে হুমকিও দেন।

শুধু তাই নয়, তাদের থানায় নিয়ে যাওয়ার পর গাড়ি থেকে নামানোর সময় সেখানে কর্তব্যরত কনস্টেবল সাইফুর রহমান মিন্টুকে কিল-ঘুষি দিয়ে পোষাক টানাহেঁচড়া করে পালিয়ে যাওয়ারও চেষ্টা করেছেন তারা।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিটি সার্ভিস) বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ‘নাম্বারবিহীন একটি মোটরসাইকেল নিয়ে হেলমেটবিহীন অবস্থায় দুই সহোদর বেপরোয়া গতিতে চৌহাট্টা থেকে আম্বরখানায় যাচ্ছিলেন। পথে ট্রাফিক সার্জেন্ট জসিম উদ্দিন মোটরসাইকেলটি থামানোর সিগন্যাল দিলে তারা দুই ভাই তার সাথে অশোভন আচরণ করে। পরে তাদেরকে মোটরসাইকেলটি সাইড করার কথা বললে তারা আরও উত্তেজিত হয়ে সার্জেন্টকে অকথ্য ভাষায় গালাগালের পাশাপাশি তাকে মারধর করে তার পোষাক ছিড়ে ফেলে।’

‘এসময় পয়েন্টে থাকা পুলিশ কনস্টেবল গোলাম রসুল ও জহিরুল ইসলাম এগিয়ে এসে তাদের কবল থেকে সার্জেন্টকে রক্ষা করেন। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় দুই সহোদরকে মোটরসাইকেলসহ আটক করা হয়। খবর পেয়ে কোতয়ালী মডেল থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদেরকে আটক করে কোতয়ালী থানায় যাচ্ছিলেন। বেলা সোয়া ১টার দিকে থানার সম্মুখে হ্যান্ডকাপ পরা অবস্থায় তারা দুজন ডিউটিতে থাকা কনস্টেবল সাইফুর রহমান মিন্টুকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুষি মেরে পালানোর চেষ্টা চালায়।’

এ ঘটনায় মারধরের শিকার ট্রাফিক সার্জেন্ট জসিম উদ্দিন বাদি হয়ে কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আর তিনি প্রাথমিক চিকিৎসাও নিয়েছেন। ওই মামলাই দুই ভাইকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে বলে জানান অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের।

নোমান/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়