Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

চান্দাইকোনায় মহামায়া সংঘের তারুণ্যের উদ্যোগে দুর্গাপূজা

বগুড়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:২৭, ১৫ অক্টোবর ২০২১  
চান্দাইকোনায় মহামায়া সংঘের তারুণ্যের উদ্যোগে দুর্গাপূজা

বগুড়ার শেরপুর সীমাবাড়িতে একঝাঁক তরুণের উদ্যোগে উদযাপিত হলো দুর্গাপূজা। মহামায়া সংঘের আয়োজনে এই পূজামণ্ডপ ১ বিঘা জায়গার উপর প্রতিষ্ঠিত।

দীর্ঘদিন থেকেই এই সংঘের উদ্যোগে এখানে পূজা হচ্ছে। মহামায়া সংঘের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন চন্দন কুমার সরকার। তবে গত ৮ বছর হলো এই পূজা পরিচালনা করার গুরুভার পড়েছে চান্দাইকোনা সীমাবাড়ী এলাকার এক ঝাঁক তরুণের উপর। তারা দায়িত্ব নিয়ে পূজা উদযাপন করছেন। তারা এই পূজা উৎসবমুখর এবং প্রাণবন্ত করতে চেষ্টার ত্রুটি রাখছেন না। যে কারণে সীমাবাড়ী ইউনিয়ন ছাড়াও ইউনিয়নের বাইরে থেকেও এই পূজার প্রতিমা দর্শনে আসেন ভক্তবৃন্দরা। 

সীমাবাড়ী মহামায়া সংঘের পূজায় প্রতিমা তিন কাঠামোতে করা হয়েছে। একটিতে দুর্গা। একটিতে গনেশ-লক্ষ্মী এবং একটিতে কার্তিক- স্বরসতী রয়েছে। চন্দ কুমার সরকার যখন এই পূজা শুরু করেন তখন তার সঙ্গে ছিলেন আশীষ কুমার রায়, চঞ্চল কুমার কুন্ডু, রামচন্দ্র বসাক, প্রকাশ চন্দ্র সাহাসহ আরো অনেকে। বর্তমানে সংঘের সভাপতি পলাশ কুমার রায়, সাধারণ সম্পাদক সুখলক সাহা। এ ছাড়া সঞ্জয় রায়, দেবাশীষ সাহা, অজয় সাহা, জয় বসাক, দীপঙ্কর সাহাসহ আরো বেশ কয়েকজন দায়িত্বে রয়েছেন। 

সীমাবাড়ী মহামায়া সংঘের সভাপতি পলাশ কুমার রায় জানান, তারা কমিটির সদস্যরা মিলে নিজেরা চাঁদা তুলে মায়ের পূজা করেন। তবে কেউ যদি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন তাহলে তারা গ্রহণ করেন। তারা সাধ্যমতো চেষ্টা করেন বড় পরিসরে এর আয়োজন করতে। এবং মণ্ডপ দৃষ্টিনন্দন করার জন্যও তাদের চেষ্টার কমতি থাকে না বলে জানান মহামায়া সংঘের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় রায়। যে কারণে এলাকার অন্যান্য মণ্ডপ থেকে এই মণ্ডপের ডেকোরশন এবং লাইটিং আলাদা হয়ে থাকে। 

/তারা/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়