ঢাকা     সোমবার   ২৪ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ১০ ১৪২৮ ||  ২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

কক্সবাজার থেকে ৯৯৫ কি. মি. দক্ষিণপশ্চিমে ‘জাওয়াদ’

কক্সবাজার প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৩৪, ৪ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১২:৪৫, ৪ ডিসেম্বর ২০২১
কক্সবাজার থেকে ৯৯৫ কি. মি. দক্ষিণপশ্চিমে ‘জাওয়াদ’

বঙ্গোপসাগর ও উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ আরও উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে কক্সবাজার থেকে অনেক দূরে অবস্থান করছে। বর্তমানে এটি কক্সবাজার থেকে ৯৯৫ কি. মি. দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছে। এটি আরও উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে বিষয়টি জানিয়েছেন কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন।

এদিকে, জাওয়াদের প্রভাবে বঙ্গোপসাগরে পানি ফুলে কিছুটা উত্তাল থাকলেও দেশের নানা প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকরা তা উপেক্ষা করে সমুদ্রস্না ও ঘুরাঘুরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

আবহাওয়া অফিস জানায়, শনিবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল ৬টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৩০ কি. মি. দক্ষিণপশ্চিমে এবং  কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৯৫ কি. মি. দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল। এছাড়াও মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৮৫ কি. মি. দক্ষিণ দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৮৯৫ কি. মি. দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল।

আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন জানান, ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রে ৫৪ কি. মি. এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কি. মি. যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটে সাগর উত্তাল রয়েছে।

এদিকে, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। তাদেরকে গভীর সাগরে বিচরণ না করার জন্যও বলা হয়েছে।

কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দীন আহমেদ জানান, সমুদ্রবন্দরে ২ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত সম্পর্কে ট্যুরিস্ট পুলিশ অবগত রয়েছে। মাইকিং করে পর্যটকদের সতর্কতাসহ পানি থেকে ওপরে উঠে আসতে বলা হচ্ছে।

তারেকুর/বুলাকী

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়