ঢাকা     সোমবার   ০৪ জুলাই ২০২২ ||  আষাঢ় ২০ ১৪২৯ ||  ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

টিকটক থেকে প্রেম-বিয়ে, অতঃপর পাচার

লালমনিরহাট প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:০৪, ২২ মে ২০২২   আপডেট: ২১:৫৩, ২২ মে ২০২২
টিকটক থেকে প্রেম-বিয়ে, অতঃপর পাচার

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টিকটক ও ফেসবুকের মাধ্যমে সোহেলের (২৮) সঙ্গে পরিচয় হয় পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার এক যুবতীর (২২)। পরিচয়ের সুবাদে এক সময় প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে দুজনের মধ্যে। পরবর্তীতে বিয়েও করেন তারা। তবে সেই বিয়ে সুখের হলো না।

গত ১২ মে সোহেলের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম ইউনিয়ন দিয়ে ভারতে পাচার করা হয় ওই যুবতীকে। তবে এক সপ্তাহ পর কৌশলে বাংলাদেশে ফিরে আসেন তিনি।

এ ঘটনায় স্বামী সোহেলসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে পাটগ্রাম থানায় মামলা করেছেন ওই যুবতী। থানা পুলিশ ও মামলা সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

মামলা দায়ের হওয়ার পর শনিবার (২১ মে) রাতেই অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে প্রধান আসামি সোহেল।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- আশরাফুল ইসলাম, মোকছেদুল হক ও চম্পা বেগম। সোহেলের বাড়ি হবিগঞ্জের জেলার নবীগঞ্জের বেতাপুর গ্রামে। তার বাবার নাম কিবরিয়া।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘মূলহোতা সোহেলকে গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। গ্রেপ্তারকৃত তিনজনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।’

ফারুক/কেআই

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়