ঢাকা     বুধবার   ১৭ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৪ ১৪৩১

দাখিল পরীক্ষায় মায়ের প্রক্সি দিতে গিয়ে মেয়ে আটক

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩৯, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ২২:৪৮, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
দাখিল পরীক্ষায় মায়ের প্রক্সি দিতে গিয়ে মেয়ে আটক

গোপালগঞ্জে দাখিল পরীক্ষায় মায়ের পক্ষে প্রক্সি দিতে গিয়ে মেয়ে আটক হয়েছে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাসেল মুন্সী তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন। দাখিল পরীক্ষায় ৪৬ বছর বয়সী মা খাদিজা বেগমের হয়ে ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়ে সুমাইয়া খানম পরীক্ষা দিতে কেন্দ্রে যায়।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) গোপালগঞ্জ শহরতলীর হরিদাশপুর রয়েল টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। হরিদাসপুর রয়েল টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব আতিয়ার রাসুল হিমেল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযুক্ত পরিক্ষার্থী মা খাদিজা বেগম গোপালগঞ্জ শহরের মহিলা আলিয়া আলিম মাদ্রাসা থেকে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছিলেন। তিনটি পরীক্ষায় তিনি মেয়েকে দিয়েই পরীক্ষা দিয়েছেন। পরীক্ষার্থী মা খাদিজা বেগম শহরতলীর ঘোষেরচর উত্তরপাড়া গ্রামে জাহাঙ্গীর মিয়ার স্ত্রী। 

হরিদাসপুর রয়েল টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব আতিয়ার রাসুল হিমেল জানান, হরিদাসপুর রয়েল টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্র পড়ে। আজ বৃহস্পতিবার আরবি দ্বিতীয়পত্রের পরীক্ষা ছিল। পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষার্থী সুমাইয়া খানমের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে প্রবেশপত্র দেখতে চাইলে সাদাকালো একটি প্রবেশপত্র দেখায়। পরে ছবির সঙ্গে তার চেহারার অমিল থাকায় তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ সময় সুমাইয়া জানায়, গোপালগঞ্জ শহরের মহিলা আলিয়া মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষার্থী মা খাদিজা খানমের স্থলে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। এর আগে মায়ের হয়ে তিনটি পরীক্ষা দিয়েছে। 

তিনি বলেন, অভিভাবকেরা জরিমানার টাকা পরিশোধ করে সুমাইয়াকে মুক্ত করে বাড়িতে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে গোপালগঞ্জ মহিলা আলিয়া আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম বলেন, ওই শিক্ষার্থীকে মাদ্রাসা থেকে বহিষ্কারসহ তার রেজিস্ট্রেশন বাতিলের জন্য সুপারিশ করা হবে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত পরীক্ষার্থী খাদিজা বেগম বলেন, মেয়েকে দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ানো ভুল হয়েছে। তবে এ বয়সে মনের ইচ্ছা মেটাতেই পরীক্ষা দিচ্ছিলেন।
 

বাদল/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়