ঢাকা     শনিবার   ২২ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৮ ১৪৩১

দাঁত দেখায় আদুরী, প্রস্তুত সুন্দরী, বিগ বস ও পাঠান

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৩৯, ১১ জুন ২০২৪   আপডেট: ১৭:০৫, ১১ জুন ২০২৪
দাঁত দেখায় আদুরী, প্রস্তুত সুন্দরী, বিগ বস ও পাঠান

মানুষের কথায় হেসে উঠে দাঁত দেখায় আদুরী

লক্ষ্মীপুরে ঈদ উল আজহা উপলক্ষ্যে বিভিন্ন খামার ও হাট থেকে গরু বিক্রি শুরু করেছেন কৃষক, খামারি ও ব্যাপারীরা। জেলার ৫টি উপজেলার পশু হাটগুলো ইতোমধ্যে জমে উঠতেও শুরু করেছে। অনেক খামাারি ও ব্যবসায়ী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও প্রচারণা চালিয়ে গরু বিক্রি করছেন। এবার লক্ষ্মীপুরে সিক্স ফার্মা নামের একটি খামার চমক দেখাচ্ছে। এই খামারে আদুরি নামের একটি গরু রয়েছে, যে কিনা মানুষের কথায় হেসে উঠে দাঁত দেখায়। এছাড়া, রয়েছে সুন্দরী, বিগ বস ও পাঠান নামের বিশাল আকৃতির আরো কয়েকটি গরু। 

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার সাহেব বাজার এলাকায় সিক্স ফার্মা নামের খামারটির অবস্থান। ২০২১ সালে ৬ জন বন্ধু যৌথভাবে শুরু করেন খামাারটি। এবছর খামারটিতে ঈদকে টার্গেট করে ৭০টি গরু প্রস্তুত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে বিক্রি হয়েছে ২৬টি গরু। 

সরেজমিনে দেখা যায়, কোরবানির ঈদ উপলক্ষে খামারে গরু প্রদর্শনী চলছে। এখানে ৩৫৫ কেজি ওজনের লাল রঙের নেপালি গীর জাতের একটি গরু নিয়ে মানুষের মধ্যে কৌতুহল দেখা গেছে। খামাার কর্তৃপক্ষ এই গরুর নাম রেখেছেন আদুরী। দাঁত দেখাতে বললেই, হেসে উঠে দাঁত দেখায় গরুটি। খামারিদের পক্ষ থেকে এই গরুর দাম চাওয়া হচ্ছে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা। 

আদুরীর পাশেই ছিল শাহীওয়াল জাতের ৫২৫ কেজি ওজনের সুন্দরী নামের আরও একটি গরু। এর দাম চাওয়া হয়েছে ৫ লাখ টাকা। খামারে থাকা বিগ বসের দাম সাড়ে ৫ লাখ টাকা চাওয়া হচ্ছে। ৪৮০ কেজি ওজনের পাঠান নামের বড় আকৃতির গরুটির দাম চাওয়া হয়েছে ৪ লাখ টাকা। এই খামাারে দেশি ও অন্য জাতের ছোট বড় ৭০টি গরু রয়েছে। 

খামার কর্তৃপক্ষ জানান, ৫-৬ জন শ্রমিক গরুগুলো দেখভাল করছেন এখন। এদের সবার দায়িত্ব ভাগ করে দেওয়া। কেউ পশুগুলোকে গোসল করান, কেউ খাবার (খড়, ঘাস, খৈল, ভুষি ও পানি) দেন।

শ্রমিকরা জানান, প্রাকৃতিক খাবারের মাধ্যমে লালন-পালন করা হয়েছে গরুগুলো। কোরবানকে টার্গেট করেই গরুগুলোকে বড় করেছেন তারা। গরুগুলো আমাদের কথা বুঝতে পারে। বসতে বললে বসে, উঠতে বললে উঠে দাড়ায়। আদুরী নামের গরুটি দাঁত দেখাতে বললে হেঁসে উঠে দাঁতও দেখায়। গরুগুলো বিক্রি করতে খারাপ লাগলেও মালিকের লাভের আশায় বিক্রি করতে হবে। মালিক খুশিতো আমরা খুশি। 

খামারটির শ্রমিক আতিকুর রহমান বলেন, ‘খুব যত্ন নিয়ে আমরা গরুগুলো লালন-পালন করেছি। ক্যামিকেল যুক্ত কোনো খাবার খাওয়ানো হয়নি। কয়েকটি গরু আছে, এর মধ্যে বিগ বস সবচেয়ে শান্ত স্বভাবের। অন্য খামার মালিকরা তাকে শিক্ষিত গরুও বলে। সে সবার কথা শোনে। ছোট বস একটু রাগী। আর আদুরী তার দাঁত দেখিয়ে সবাইকে মুগ্ধ করে। সুন্দরীও সবার কথা শোনে।’

খামার মালিকদের একজন ব্যারিষ্টার মো. রাশেদুল ইসলাম রাজীব বলেন, ‘এবার আমাদের খামারে কোরবানি ঈদকে টার্গেট করে ৭০টি গরু প্রস্তুত করা হয়েছে। ছোট দেশি গরু ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও বড় শাহীওয়াল এবং নেপালী গীরসহ নানা জাতের গরু বিক্রি হচ্ছে ২ লাখ থেকে ৫ লাখ টাকায়। এখন পর্যন্ত ২৬টি গরু বিক্রি হয়েছে। ঈদের আগের দিন পর্যন্ত সব গরু বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনাা রয়েছে।’

জেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা কুমুদ রঞ্জন মিত্র বলেন, লক্ষ্মীপুরে এবার কোরবানির পশুর চাহিদা রয়েছে ৬৬ হাজার ৯১৫টি। বিভিন্ন খামারে পশুর সংখ্যা রয়েছে ৬৩ হাজার ৬৯৪টি। চাহিদা পূরণের জন্য অন্যান্য জেলা থেকে গরু সংগ্রহ করা হবে। 

লক্ষ্মীপুরের জেলা প্রশাসক সুরাইয়া জাহান বলেন, জেলায় স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলে অর্ধ শতাধিক পশুর হাট বসবে। পশুর হাটকে কেন্দ্র করে সড়কে যাতে যানযট সৃষ্টি না হয় সেদিকে নজর দেওয়া হচ্ছে। মলম পার্টি ও ছিনতাই রোধে জনগণের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা যৌথভাবে কাজ করবে। হাটগুলোতে জাল নোট শনাক্তের মেশিনও থাকবে। অনুমোদনহীন হাট বসলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জাহাঙ্গীর/মাসুদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়