Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১ ||  বৈশাখ ৬ ১৪২৮ ||  ০৬ রমজান ১৪৪২

শীতকাল যে কারণে বয়স্কদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ 

এস এম গল্প ইকবাল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৫৫, ১০ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ২১:১৯, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
শীতকাল যে কারণে বয়স্কদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ 

শীতকালে অসুখ-বিসুখ বেড়ে যায়। এসময় ঠান্ডা-ফ্লু তথা শ্বাসতন্ত্রীয় সংক্রমণের হার যেমন বাড়ে, তেমনি শরীরে বিদ্যমান কিছু রোগ তীব্রতর হয়ে ওঠে। কিন্তু আপনি কি জানেন শীতকালের ঠান্ডা তাপমাত্রা হার্টকে প্রভাবিত করতে পারে? অনেকেই না জানলেও এটা সত্য যে ঠান্ডা তাপমাত্রা হার্টের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। তাপমাত্রা কমে গেলে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি উচ্চ হয়। বিভিন্ন দেশে গরমকালের চেয়ে শীতকালে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে যায়। যুক্তরাজ্যের অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিকসের প্রতিবেদনে উল্লেখ আছে, ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে ২০১৮-২০১৯ শীতকালে গরমকালের চেয়ে ২৩,০০০ মৃত্যু বেশি হয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, শীতকালে বয়স্ক মানুষ ও হার্ট-শ্বাসতন্ত্রের রোগীদের শরীর ঠান্ডায় সহজে কাবু হয়ে যায়। তাই এসময় রোগের তীব্রতা এড়াতে বেশ সচেতন থাকতে হয়। কিন্তু তাপমাত্রা কমে গেলে হার্ট প্রভাবিত হয় কীভাবে? এ প্রসঙ্গে ডক্টর ফর ইউর জেনারেল প্র্যাকটিশনার ডায়ানা গল বলেন, ‘ঠান্ডা আবহাওয়ায় হার্টকে সচরাচরের চেয়ে বেশি পরিশ্রম করতে হয়। ঠান্ডায় রক্তনালী সংকুচিত হয় বলে হার্টের পক্ষে কাজ করা কঠিন হয়ে পড়ে। এই যে হার্টকে বাড়তি চাপ সামলাতে হচ্ছে তা কিছুক্ষেত্রে হার্ট অ্যাটাক ঘটাতে পারে।’

নিজেকে রক্ষা ও তাপ ধরে রাখার জন্য ঠান্ডার প্রতি শরীরের একটি প্রতিক্রিয়া হলো, ত্বক পৃষ্ঠের নিকটবর্তী রক্তনালীকে সংকুচিত করে ফেলা। এটা ঘটলে এসব রক্তনালীতে রক্তপ্রবাহ কমে যায়, যার ফলে সিস্টেমের অন্যান্য অংশে বেশি চাপ পড়ে। একারণে পুরো শরীরে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত পাঠাতে হার্টকে সচরাচরের তুলনায় কঠোর শ্রম দিতে হয়। ডা. গলের মতে, এটা রক্তচাপ বৃদ্ধি করে ও রক্ত জমাট বাঁধার ঝুঁকি বাড়ায়। উভয়েই হলো হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের রিস্ক ফ্যাক্টর। এছাড়া অন্যান্য ফ্যাক্টরেরও ভূমিকা থাকতে পারে, যেমন- হরমোনের তারতম্য ও প্লাটিলেটের সংখ্যা বেড়ে যাওয়া।

আপনার পরিবারে কারো বয়স ৬৫ বছরের বেশি হলে অথবা হার্ট-রক্তনালী সংক্রান্ত রোগ থাকলে শীতকালে বিশেষ যত্ন নেয়া গুরুত্বপূর্ণ। ট্রিটেড ডটকমের জেনারেল প্র্যাকটিশনার ড্যানিয়েল এটকিনসন বলেন, ‘এমনিতেই বয়স্ক মানুষদের শরীর তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে কাঠিন্যতায় পড়ে। তাই শীতকালের মতো কড়া আবহাওয়ায় তারা যে আরো সমস্যায় পড়বেন এতে কোনো সন্দেহ নেই।’ বয়স বাড়লে ধীরে ধীরে পেশি ঘনত্ব কমতে থাকে, যার ফলে বয়স্ককালে ঠান্ডা বেশি অনুভূত হয়। বয়স্ক মানুষের ইমিউন সিস্টেম স্বাভাবিক কাজ করতে পারে না- এর ফলে শীতের প্রচলিত রোগ ঠান্ডা-ফ্লু ও নিউমোনিয়ার মারাত্মক জটিলতায় ভোগার ঝুঁকি বেড়ে যায়। ডা. গলের পরামর্শ হলো, শীতকালে বয়স্ক মানুষদের শ্বাসতন্ত্রীয় সংক্রমণের গুরুতর জটিলতা ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতে ঠান্ডার সংস্পর্শ থেকে রক্ষা করতে হবে।

ঢাকা/ফিরোজ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়