Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

ইউরোপে বৈধভাবে শ্রমিক পাঠাতে চায় বাংলাদেশ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:০৭, ২৭ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৭:১১, ২৭ অক্টোবর ২০২১
ইউরোপে বৈধভাবে শ্রমিক পাঠাতে চায় বাংলাদেশ

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সদস্য দেশগুলোতে বৈধভাবে দক্ষ ও আধা দক্ষ শ্রমিক পাঠানোর সুযোগ চেয়েছে বাংলাদেশ। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে ইইউর সঙ্গে চতুর্থ কূটনৈতিক সংলাপে এ সুযোগ চায় বাংলাদেশ।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

বিবৃতিতে বলা হয়, অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরাতে স্বাক্ষরিত চুক্তি বাস্তবায়নে ঢাকার প্রতিশ্রুতিতে সন্তুষ্টি জানিয়েছে ইইউ।

এতে উল্লেখ করা হয়, ইন্দো-প্যাসিফিক ইস্যু, জলবায়ু পরিবর্তন, করোনা পরবর্তী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার, আফগান ও রোহিঙ্গা ইস্যুতে ঢাকা ও ইইউ একসঙ্গে কাজ করার বিষয়ে একমত হয়েছে।

বাংলাদেশে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের অপব্যবহার, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে ইইউ।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর পটভূমিতে গঠনমূলক ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে এ আলোচনা হয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ইইউর ‌এভরিথিং বাট আর্মস (ইবিএ) নামের একতরফা অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য প্রকল্পের সবচেয়ে বড় সুবিধাভোগী হিসেবে অব্যাহত সাফল্যের জন্য বাংলাদেশের প্রশংসা করেছে জোটটি। এ প্রেক্ষাপটে ইইউ বাংলাদেশের শ্রম খাতে তার জাতীয় কর্মপরিকল্পনা চূড়ান্তকরণ ও প্রকাশকে স্বাগত জানিয়েছে। একই সঙ্গে জোটটি নির্ধারিত সময়সীমা অনুযায়ী এর ব্যাপক বাস্তবায়নের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছে। বাংলাদেশ ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তা পুনর্ব্যক্ত করেছে।

যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, থাকার অনুমোদন না থাকা ব্যক্তিদের (অবৈধ) শনাক্তকরণ এবং প্রত্যাবর্তনের জন্য স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতি বাস্তবায়নে যে অগ্রগতি বাংলাদেশ প্রদর্শন করেছে, তাকে স্বাগত জানিয়েছে ইইউ। জোটটি বাংলাদেশকে তার প্রতিশ্রুতি অব্যাহত রাখতে এবং মামলার ব্যাকলগ ক্লিয়ার করা ও স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতিতে নির্ধারিত প্রতিশ্রুতি পূরণসহ আরও দৃঢ় ফল প্রদর্শনের আহ্বান জানিয়েছে।

ইইউ দক্ষ ও আধা-দক্ষ কর্মশক্তির জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে অভিবাসনের আইনি পথ প্রশস্ত করার সুযোগগুলো যেন দেখে, সে আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ।

উভয় পক্ষই অভিন্ন এজেন্ডা নিয়ে কাজ করতে সম্মত হয়েছে, যা ২০২৩ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠেয় পরবর্তী আলোচনার সময় পর্যালোচনা করা হবে।

ইইউ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে ছিলেন ইউরোপিয়ান এক্সটার্নাল অ্যাকশন সার্ভিসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ফর এশিয়া অ্যান্ড দ্য প্যাসিফিক গুনার উইগ্যান্ড। বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

হাসান/কেআই

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়