ঢাকা     বুধবার   ২৯ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

‘যারা নুন-ভাতের কথাও ভাবতে পারত না, তারা এখন মাছ-মাংসের চিন্তা করে’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৫৭, ১৯ এপ্রিল ২০২৪   আপডেট: ১২:৫৭, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
‘যারা নুন-ভাতের কথাও ভাবতে পারত না, তারা এখন মাছ-মাংসের চিন্তা করে’

কৃষক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গণভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘এক সময় যারা নুন-ভাতের কথা বা ডাল-ভাতের কথা চিন্তাও করতে পারত না, এখন তারা মাছ-মাংস-ডিমের কথাও চিন্তা করে। ফলে যারা সরকারের সমালোচনা করেন, তাদের সেগুলো মাথায় রেখে উন্নয়ন হয়েছে কিনা তা বিবেচনা করতে হবে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) সকালে বাংলাদেশ কৃষক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গণভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পড়ুন: কৃষকদের গুরুত্ব দেওয়ায় কৃষি সমৃদ্ধ হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যে দেশের মানুষ একসময় নুন-ভাত পেত না, ভাতের জন্য কান্নাকাটি করত, যাদের ডাল-ভাত খাওয়ানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কেউ কেউ আবার এক ধাপ এসে ভাতের বদলে আলু খেতে বলত। এখন মানুষ কিন্তু নুন-ভাত, ডাল-ভাতের জন্য কাঁদে না। মাছ-মাংস খেতে চায়। এখন শুধু মাংসের দাম বাড়ল কেন, মুরগির দাম বাড়ল কেন, ডিমের দাম বাড়ল কেন; এই পর্যায়ে এসেছে। আমি মনে করি যারা নুন-ভাত জোগার করতে পারত না, তারা এখন মাছ-মাংস-ডিম-মুরগির কথা যে বলে, এটা তো উন্নয়ন। মানুষ কত ধাপ ওপরে উঠে গেছে। সেটাই হলো বাস্তবতা। সেই জায়গাটা অনেকেই বিশ্লেষণ করেন না। এটা বিশ্লেষণ করতে হবে। উন্নতি যে হয়েছে সেটা স্বীকার করতে হবে, যারা আমাদের ব্যাপকভাবে সমালোচনা করেন।’

কৃষির উন্নয়নে সমবায় পদ্ধতি চালু করার পরামর্শ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এটা করতে পারলে জীবনেও কোনো খাদ্যের অভাব হবে না।’

সরকার কৃষি খাতে বছরে ২৬ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতির পিতার দেখানো পথে সমবায় কৃষি নিশ্চিত করা হলে দেশে কখনো খাদ্যের অভাব হবে না।’

সরকারপ্রধান বলেন, ‘অর্থনৈতিকভাবে উন্নতি হয়েছে বলেই দেশের মানুষ এখন ডাল-ভাত নয়, বরং মাছ-মাংসের দাম নিয়ে চিন্তা করে। যারা সমালোচনা করছেন, তাদের এই বিষয়টিও মাথায় রাখা উচিত।’  

/পারভেজ/সাইফ/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়