ঢাকা     রোববার   ০২ অক্টোবর ২০২২ ||  আশ্বিন ১৭ ১৪২৯ ||  ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

৮২ সাংগঠনিক জেলায় বিএনপির চিঠি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৪৬, ১৭ আগস্ট ২০২২  
৮২ সাংগঠনিক জেলায় বিএনপির চিঠি

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি, গণপরিবহনে ভাড়া বৃদ্ধি, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে দেশব্যাপী ধারাবাহিক কর্মসূচি পালনের পরিকল্পনা করছে বিএনপি। এসব বিষয় নিয়ে আগামী ২২ আগস্ট থেকে সব জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সভা, সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করবে বিএনপি।

বিএনপির একাধিক সূত্র থেকে জানা গেছে, মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তর থেকে ৮২টি সাংগঠনিক জেলায় এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে। সব কর্মসূচিতে জেলার কেন্দ্রীয় নেতা, সাবেক সংসদ সদস্য ও গত জাতীয় নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়া নেতাদের উপস্থিত থাকাসহ ৬টি নির্দেশনা রয়েছে চিঠিতে। কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মোতাবেক ধারাবাহিক দলীয় কর্মসূচি পালনে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট নেতাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও মৌখিকভাবে তাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সারাদেশে নেতাদের কাছে পাঠানো চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। চিঠিতে কর্মসূচি বাস্তবায়নে দিক নির্দেশনা দিয়ে উল্লেখ করা হয়, ‘প্রতিটি উপজেলা/থানা/পৌর কর্মসূচির তারিখ নির্ধারণ করবেন স্ব স্ব জেলার নেতারা। ২২ আগস্ট থেকে প্রতিটি জেলা/মহানগরের কমপক্ষে একটি উপজেলা/থানায় এই কর্মসূচি পালিত হবে। সেসব কর্মসূচিতে জেলার নেতারা এবং ওই সব জেলার অধিবাসী কেন্দ্রীয় নেতারা ও সাবেক সংসদ-সদস্য উপস্থিত থাকবেন। এছাড়াও চিঠিতে বলা হয়, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের ইউনিটের নেতারা কর্মসূচি সফল করতে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করবেন। এ বিষয়ে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সার্বিক সমন্বয় করবেন এবং ইউনিটগুলোকে নির্দেশ প্রদান করবেন।’

রুহুল কবির রিজভী বলেন, সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে। আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ইতোমধ্যে ‘টেক ব্যাক বাংলাদেশ’ আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন। এই আন্দোলন শুধু বিএনপির ক্ষমতায় যাওয়ার আন্দোলন নয়, স্বাধীনতা রক্ষার আন্দোলন। গণতন্ত্র, ভোটাধিকার ও ব্যক্তিস্বাধীনতা প্রতিষ্ঠার আন্দোলন। জ্বালানি তেল, পবিহন ভাড়া, গ্যাসের দামসহ দ্রব্যমূল্য লাগামহীনভাবে বাড়ছে। দেশের মানুষ দিশেহারা হয়ে বেঁচে থাকার প্রয়োজনে জেগে উঠেছে। সবাই বর্তমান সরকারের পতন চায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং একজন সদস্য জানান, জনসম্পৃক্ত নানা ইস্যুতে ধারাবাহিক কর্মসূচি দরকার। বর্তমানে সেই পথেই হাঁটছে বিএনপি। সরকার পতনের আন্দোলনকে সফল করতে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা এসব কর্মসূচিতে উজ্জীবিত হবে, শক্তিশালী হবে। সর্বশেষ নয়াপল্টনে সমাবেশের পর বিএনপির নেতাকর্মীরা গ্রামে-গঞ্জে অনেক উজ্জীবিত হয়েছেন। তাই, দলের নীতি নির্ধারকরা মনে করছেন, আমাদের সরকার পতনের এই ধারাবাহিক কর্মসূচি সফল হবে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় আরেক নেতা বলেন, বর্তমানে দল থেকে দেশব্যাপী যে কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে- তাতে নেতা-কর্মীদের পাশাপাশি সারা দেশের মানুষ জানতে পারবেন আমরা মানুষের সমস্যায়, মানুষের জন্য কাজ করছি। আমরা বিশ্বাস করি, আমাদের এই কর্মসূচি সফল হলে।

/মেয়া/সাইফ/

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়