Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১ ||  বৈশাখ ৬ ১৪২৮ ||  ০৫ রমজান ১৪৪২

স্থানীয় কোচে আস্থা জাহানারাদের 

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৪৯, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৮:৩১, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
স্থানীয় কোচে আস্থা জাহানারাদের 

করোনাভাইরাসের ধাক্কা সামলে এক মাস ধরে সিলেটে ক্যাম্প গড়ে প্রস্তুতি নিয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। দক্ষিণ আফ্রিকা ইমার্জিং নারী দলের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজকে কেন্দ্র করে নিজেদের প্রস্তুত করছেন জাহানারা-সালমারা।

ক্যাম্পে নারী দলের সঙ্গে ছিলেন না প্রধান কোচ। সহকারী কোচ হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া ফয়সাল হোসেন ডিকেন্সের অধীনেই কাজ করেছেন সালামারা। এ ছাড়া ব্যাটিং কোচ শাহ নেওয়াজ শানু, স্পিন কোচ ওয়াহিদুল গণি ও পেস বোলারদের নিয়ে কাজ করেছেন নির্বাচকের দায়িত্ব পাওয়া পেসার মঞ্জুরুল ইসলাম।

করোনা হানা দেওয়ার আগে বিদায় নেয় প্রধান কোচ আঞ্জু জৈন। নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর তার ওপর আস্থা হারায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। প্রায় একবছর ধরে না থাকলেও নারী দল অভাব বোধ করছে না প্রধান কোচের।

দলের অন্যতম সদস্য জাহানারার ভাষ্যমতে, ‘আমার কাছে মনে হয়না হেড কোচের কোন অভাব আমরা দেখতে পাচ্ছি। এটা আসলে পুরোটাই বোর্ডের ব্যাপার।’

প্রধান কোচ ছাড়া কীভাবে? ব্যাখ্যা দিয়েছেন জাহানারা নিজেই, ‘আমাদের সহকারী কোচ আছে, তার সাথে আমাদের স্কিল ভিত্তিতে কোচ দেওয়া হয়েছে। যেমন সিলেটে নির্বাচক মঞ্জু ভাই কাজ করেছেন, উনি একজন পেস বোলার ছিলেন। উনি আমাদের পেস বোলারদের নিয়ে আলাদা করে কাজ করেছেন। এখানে আসার পর ব্যাটিং সানু স্যার, স্পিন কোচ ওয়াহিদ গনি স্যার আছেন। সুতরাং বলা যায় মোটামুটি পরিকল্পনা মোতাবেক ভালোই চলছে।’

ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ২৮ মার্চ বাংলাদেশ সফরে আসছে দক্ষিণ আফ্রিকা ইমার্জিং নারী ক্রিকেট দল। এই সিরিজে বাংলাদেশ নারী দলের বিপক্ষে পাঁচটি ওয়ানডে খেলবে তারা। সবগুলো খেলা অনুষ্ঠিত হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। 

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে প্রস্তুতি কেমন? জাহানারা জানালেন সবকিছু মিলিয়ে তারা মাঠে নামার জন্য প্রস্তুত।  ‘সিলেটে ৫০ ওভারের ম্যাচ খেলেছি ১০ টা। সেখানে সবাই মোটামুটি ফিট ছিল, কেউ কিন্তু ইনজুরিতে পড়েনি। এদিক থেকে আমি বলতে পারি তারা যথেষ্ট ফিট। স্কিলের দিক থেকে যদি বলি আমাদের সেঞ্চুরি ছিল, পাঁচ উইকেট হয়নি তবে ৪ উইকেট ৩ উইকেট ছিল। বোলাররা ভালো করেছে। সবকিছু মিলিয়ে বলা যায় আমরা প্রস্তুত।’

আগামী ২৮ মার্চ ঢাকায় পা রাখেব প্রোটিয়া নারী দল। ঢাকায় বিমানবন্দর থেকেই আবার অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে করে সিলেট যাবে। সিলেটে প্রথম কোভিড টেস্টের পর তিনদিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। তৃতীয় দিন কোভিড টেস্টে সবাই নেগেটিভ আসলে অনুশীলন শুরু করবে। ওয়ানডে ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে ৪ এপ্রিল থেকে। শেষে হবে ১৩ এপ্রিল। মাঝে ৩টি ওয়ানডে হবে ৬, ৮ ও ১১ এপ্রিল।

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়