ঢাকা     রোববার   ২৭ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৯ ||  ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

এই প্রশ্নের কোনো উত্তর নেই: মোস্তাফিজ

সাইফুল ইসলাম রিয়াদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৪২, ১১ মে ২০২১   আপডেট: ০৮:১৮, ১২ মে ২০২১
এই প্রশ্নের কোনো উত্তর নেই: মোস্তাফিজ

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দু-সপ্তাহ বাকি নেই। সতীর্থরা অনুশীলন শুরু করলেও আইপিএল খেলে ভারত থেকে ফেরা মোস্তাফিজুর রহমান ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে আছেন। প্রথমে নিউ জিল্যান্ড, এরপর ভারত এখন ঘরে ফিরে চার দেয়ালের বন্দিজীবনে হাঁসফাঁস করছেন মোস্তাফিজ।

অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে স্বস্তি এনে দিয়েছে বল হাতে ২২ গজের পারফরম্যান্স। কোয়ারেন্টাইনের দিনযাপন, আইপিএল, শ্রীলঙ্কা সিরিজ ও ক্যারিয়ার নিয়ে মোস্তাফিজ মুঠোফোনে রাইজিংবিডিডটকমকে দিয়েছেন একান্ত সাক্ষাৎকার।

পাঠকদের জন্য তা হুবহু তুলে ধরা হলো।

রাইজিংবিডি: কোয়ারেন্টাইন কেমন কাটছে?

মোস্তাফিজ: ভালো কিভাবে কাটে বলেন? প্রায় তিন মাসের মতো বাড়িতে যেতে পারছি না। মা-বাবা ভাই বোন, ভাইয়ের ছেলে-পেলে, বোন গ্রামের বাড়িতে, ওদেরও দেখি না কতদিন। ভালো কাটছে না।

রাইজিংবিডি: এই যে এতো বায়োবাবলে থাকতে হচ্ছে এতে খেলার মধ্য মনোসোংযোগে ঘাটতি হয় কী না?

মোস্তাফিজ: একটু বড় সফর হলে সে সময় একটু সমস্যা হয়, এই আরকি। আপনি একই জায়গায় বার বার যদি থাকেন কত সময়ই বা ভালো লাগে। অল্প দিনের হলে ঠিক আছে, মানিয়ে নেওয়া যায়। কিন্তু বেশি দিনের হলে সমস্যা হয়।

রাইজিংবিডি: আপনি সাতদিন কোয়ারেন্টাইনে থেকে কোনো প্রস্তুতি ছাড়া আইপিএল খেলেছেন…  

মোস্তাফিজ: হ্যাঁ শুরু থেকে খেলবো যে মোটামোটি জানতাম। এরপর টানা খেললাম।  

রাইজিংবিডি: ব্যক্তিগতভাবে আইপিএলের পারফরম্যান্সে আপনি কতটা খুশি?

মোস্তাফিজ: যতুটুক হয়েছে আলহামদুলিল্লাহ। এবার পারফরম্যান্সে ধারাবাহিকতা ছিল। আমি নিজেও ভালো বল করেছি। এজন্য আমি খুশি।

রাইজিংবিডি: আইপিএলে কোচদের সঙ্গে নতুন কিছু নিয়ে কী কাজ করেছেন?

মোস্তাফিজ: আমার যেসব কাজ গুলো ছিল এতোদিন ধরে, সেগুলো নিয়ে চেষ্টা করেছিলাম। ওইগুলাই বেশি করে করার চেষ্টা করছিলাম। কোচরা সাহায্য করেছিলেন এ বিষয়গুলোতে।

রাইজিংবিডি: আইপিএলে আপনার বোলিংয়ে বৈচিত্র ছিল। স্লোয়ার-ইয়র্কার একটু বেশি করেছিলেন…বিশেষ করে অস্ত্রোপচারের পর আপনি ইয়র্কার দেয়া ছেড়েই দিয়েছিলেন। এবার আবার ধারাবাহিক ইয়র্কার করেছেন?

মোস্তাফিজ: আমি আমার যে জিনিসগুলো আছে সেগুলো নিয়ে কাজ করছিলাম, বেশ কিছুদিন ধরে। আপনি কষ্ট করলে সাফল্য আসবে। তাই আমি সে জিনিসগুলো নিয়া কাজ করতেছিলাম।

রাইজিংবিডি: একটু ব্যাখ্যা করবেন কি কি নিয়ে বিশেষভাবে কাজ করেছেন?

মোস্তাফিজ: আমি ইন-সুইং নিয়ে অনেকদিন ধরে কাজ করছি। এখন ইনসুইং কিছুটা হচ্ছে, তবে এটা ২ ওভারের জায়গায় আরও ২/৩ ওভার বাড়িয়ে এটলিস্ট যেনো ৪/৫ ওভার করতে পারি সেটা নিয়ে কাজ করছি। আমার ইচ্ছা ছিল, আমি প্রথম স্পেল বোলিং করলে যেন বল সুইং করাতে পারি। এটাই মূল পরিকল্পনা ছিল। এ ছাড়া আমার স্লোয়ার আর ইয়র্কার নিয়ে কাজ করেছি। সুইং-স্লোয়ার-ইয়র্কার এই তিনটাই বেশি কাজ করেছি।

রাইজিংবিডি: ব্যাকহ্যান্ড স্লোয়ার বল আলোচনায়। সঙ্গে সহজাত স্লোয়ারের জন্য আপনাকে ধারাভাষ্যকার বাঁহাতি মুত্তিয়া মুরালিধরন উপাধি দিয়েছেন...

মোস্তাফিজ: জি শুনেছি আমাকে মুরালিধরন বলেছে। উপাধি নিয়ে আর কী বলবো। আসলে কিছু বলার নাই। কোনো মন্তব্য নেই…

রাইজিংবিডি: প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে এবারই প্রথম ব্যাকহ্যান্ড স্লোয়ার করেছেন। এজন্য নিজেকে কিভাবে তৈরি করেছেন?

মোস্তাফিজ: আমার ব্যাকহ্যান্ড স্লোয়ার বল নতুন কিছু না। এটা নিয়ে অনেক দিন ধরে কাজ করতেছিলাম। বলটা আসলে ওভাবে ওরকম জায়গায় (ভালো জায়গায়) পড়ছিল না, আরো অ্যাকুরেটলি করার জন্য এটা নিয়ে আরো কাজ করা লাগবে।

রাইজিংবিডি: এবারের আইপিএলে আপনি ৮ উইকেট পেয়েছেন। কোন উইকেটটি তৃপ্তি দিয়েছে?

মোস্তাফিজ: আমার সব উইকেটই ভালো লাগছে। বিশেষ কোনো উইকেট ছিল না; যেটা পেয়ে মজা লেগেছে। সবগুলোই…  

রাইজিংবিডি: আপনার সতীর্থ তাসকিন ফিটনেস নিয়ে কাজ করেছে। পরিবর্তনও দেখা যাচ্ছে। এমন কিছু ভাবছেন কী না?

মোস্তাফিজ: কিছুদিন আগে করোনাকালীন সময়ে ও খুব কষ্ট করছে। দুই তিন বছর জাতীয় দলে ছিল না। তারপরে ঢোকার পরে ও খুব ভালো পরিশ্রম করছে। এটা আমাদের জন্য অনেক শিক্ষণীয়। আমরাও চাইলে সম্ভব, আমার ভাবনায়ও আছে। আসলে আপনি স্পোর্টসে থাকতে গেলে আপনার কষ্ট করাই লাগবে।

রাইজিংবিডি: সাদা বলে আপনি এখনো বাংলাদেশের প্রধান বোলার। অনেক দিন ধরে যেটা মাশরাফি ছিলেন…

মোস্তাফিজ: এই প্রশ্নের কোনো উত্তর নেই।

রাইজিংবিডি: আসলে আমি বোঝাতে চেয়েছি দলের মূল বোলার হিসেবে আপনার দায়িত্ব…

মোস্তাফিজ: আমি স্বাভাবিকভাবে খুব বেশি ভাবি না। এখন বিশেষ করে সাদা বলে খেলা হলে আমি চেষ্টা করি ডট বলটা যেন বেশি করতে পারি। কারণ আমি যদি ডট বল বেশি করি দেন শেষে আমার সাফল্য আসবেই।

রাইজিংবিডি: দলে এখন হাসান-শরিফুলদের মতো নতুন পেসার আছে। তাদেরকে টিপস দেন কী না…

মোস্তাফিজ: ওদের তো আর টিপস দেওয়ার কিছু নেই। অনুশীলন করার সময় সব সময় কথা হয়। বিশেষ করে আমরা পেস বোলাররা বোলিং করলে তো সবসময় কথা হয় সবার সাথে। যে খেলুক না কেন, সে যেন ভালো খেলে।

রাইজিংবিডি: শ্রীলঙ্কা সিরিজের জন্য আপনার সতীর্থরা সবাই অনুশীলন শুরু করে দিয়েছেন…আপনি হোটেলে...

মোস্তাফিজ: এটা আমার জন্য কষ্টের। আমি ওখানে (ভারতে) পাঁচদিনের মত আটকা ছিলাম। এখানেও তো জানি না কতদিন থাকব। সব মিলিয়ে অনেকদিন রুমের ভেতর থাকা হয়ে যাচ্ছে। রুমে ভেতর কাজ করা আর মাঠে কাজ করা অন্য রকম।

রাইজিংবিডি: কোয়ারেন্টাইনের বিধি অনুযায়ী আপনারা ২ থেকে ৩ দিন অনুশীলনের সুযোগ পাবেন। প্রস্তুত করতে পারবেন কী না নিজেকে…

মোস্তাফিজ: এটা আমার জন্য চাপ হয়ে যাবে। মাত্র ২/৩ দিন অনুশীলন করে খেলা কষ্ট হয়ে যাবে।

রাইজিংবিডি: শ্রীলঙ্কা সিরিজ নিয়ে কী ভাবনা?

মোস্তাফিজ: শ্রীলঙ্কা সিরিজ এখনো দুই সপ্তাহ বাকি। এখনো অনেক সময়। আপাতত আমি বের হব কবে সেটা নিয়া চিন্তায় আছি। হোটেল থেকে বের হতে পারলে তারপর ভাবনা চিন্তা আসবে। 

ঢাকা/ইয়াসিন

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়