ঢাকা     শনিবার   ০২ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৮ ১৪৩০

সাকিবের সমালোচনা নেগেটিভ পাবলিসিটি, ‘সিইও’ হিসেবে স্বাগত বিসিবির

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৪৩, ৬ জানুয়ারি ২০২৩   আপডেট: ১৯:৫৭, ৬ জানুয়ারি ২০২৩
সাকিবের সমালোচনা নেগেটিভ পাবলিসিটি, ‘সিইও’ হিসেবে স্বাগত বিসিবির

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) শুরুর দুইদিন আগে আয়োজন নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছিলেন সাকিব আল হাসান। বিসিবির সদিচ্ছার অভাব, পরিকল্পনার ঘাটতি, বাণিজ্যিকভাবে লাভবান না হওয়া বিসিবির সাংগঠনিক ব্যর্থতা বলে মনে করেন তিনি। শুধু সমালোচনাই করেননি, বিপিএলের দায়িত্ব পেলে সর্বোচ্চ দুই মাসেই বিপিএলের নকশা পাল্টে দেবেন বলে জানিয়েছিলেন।

সাকিবের এ সমালোচনার পর বিপিএল নিয়ে মোটামুটি আলোচনা শুরু হয়েছিল। এর আগ পর্যন্ত বিপিএল এগিয়েছিল কচ্ছপ গতিতে। সাকিবের এ সমালোচনা বিসিবির কাছে নেগেটিভ পাবলিসিটি মনে হয়েছে। আলোচনা যেমনই হোক বিসিবি তা গ্রহণ করেছে দুহাত ভরে। সঙ্গে সাকিবকে সিইও হিসেবে স্বাগত জানিয়েছে বিপিএলের আয়োজক ‘বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল’।

শুক্রবার (০৬ জানুয়ারি, ২০২৩) বিপিএল উদ্বোধনী দিনে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিল বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। সেখানে সাকিবকে সিইও হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করতে স্বাগত জানিয়ে বিপিএল গভার্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল বলেছেন, ‘প্রথমে সাকিবকে ধন্যবাদ জানাই। ওয়েলকাম। ও বিপিএলে সিইও হিসেবে আসতে চায়। ও নিজ থেকে আগ্রহ প্রকাশ করছে, গভর্নিং বডি থেকে তাকে আসার জন্য ওয়েলকাম জানাই। ও যদি চায় সামনের বছর থেকেই সিইও’র দায়িত্ব পালন করুক এবং আমাদেরকে সাহায্য করুক।’

আরেক প্রশ্নের উত্তরে তিনি যোগ করেন, ‘এখন তো সে খেলছে! এখন যদি তাকে দেখেন তাহলে খেলোয়াড় দৃষ্টিতে দেখতে হবে। এখন তো সে খেলোয়াড় হিসেবে আসতে পারবে না। সে সামনের বছর চলে আসুক।’

সাকিব বিসিবির সমালোচনা করে বলেছিলেন, ‘বিপিএলের সিইও হলে আমার বেশিদিন লাগবে না। আমার ধারণা এক থেকে দুই মাস লাগবে সবকিছু ঠিক করতে। পুরো সবকিছু বাদ দিয়ে নতুন করে আবার ড্রাফট হবে, ফ্রি টাইমে বিপিএল হবে। আধুনিক টেকনোলজি থাকবে। ব্রডকাস্ট ভালো থাকবে। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভেন্যু থাকবে।’

প্রত্যাশিত বাণিজ্যিক রূপ দিতে না পারাকে সাংগঠনিক ব্যর্থতা বলে মনে করেন সাকিব, ‘বাজেট ক্রিয়েট করতে পারেনি। ভ্যালু অ্যাড করতে পারেনি। এদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ বল না পেলে কিছু একটা দিয়ে বল বানিয়ে ক্রিকেট খেলছে। এমন তো না জনপ্রিয়তা নেই। সবার পছন্দের খেলার বাজার থাকবে না বিশ্বাস করি না। দুঃখজনক। মার্কেটিং জায়গা থেকে এটা ব্যর্থতা।’

সঙ্গে এ ও বলেছিলেন, ‘বিপিএলের চেয়ে প্রিমিয়ার লিগের মানও অনেক ভালো। অন্তত আয়োজকরা জানেন কখন কি করতে হবে।’

সাকিবের এসব সমালোচনা নিয়ে বিসিবির পরিচালক ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক বলেছেন, ‘আমি তো দেখি সাকিব প্রিমিয়ার ডিভিশনের অনেক খেলা মিস দেয়। কিন্তু বিপিএল তো কখনো মিস দেয় না। ওকে যদি পাল্টা প্রশ্ন করি প্রিমিয়ার ডিভিশনের তো অনেক খেলা খেলেনি। বলছে যে, প্রিমিয়ার ডিভিশনের থেকে বিপিএল খারাপ। কিন্তু বিপিএলের কোনো আসরের খেলা তো বাদ দেয়নি।’

সাকিবের সমালোচনাকে ইতিবাচক দৃষ্টিতেই দেখছেন তিনি, ‘যত কথা হবে তত তো পাবলিসিটি। ধরেন, সাকিব যদি বিপিএল নিয়ে এতো কথা না বলতো তাহলে কি এতো পাবলিসিটি হতো? ভালো…এনি পজিটিভি নেগেটিভ যে কোনো আলোচনাই ভালো।’

ইয়াসিন/আমিনুল

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়