ঢাকা, বুধবার, ১১ বৈশাখ ১৪২৬, ২৪ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

পাওয়ার টিলারের চাহিদা বাড়ছে

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-২৯ ৪:৪৭:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-০৪ ৫:৪৩:৫২ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : শ্রম ও সময় সাশ্রয়ের জন্য কৃষকের কাছে জনপ্রিয় হচ্ছে কৃষি যন্ত্রপাতি বিশেষ করে পাওয়ার টিলার। বর্তমানে প্রায় সাড়ে ৫ লাখ পাওয়ার টিলার রয়েছে। কিন্তু এসব পাওয়ার টিলার জমির গভীরে গিয়ে চাষ করতে পারছে না। এতে করে মাটির নির্দিষ্ট পরিমাণ নিচে শক্ত স্তর তৈরি হচ্ছে। আর জমির উর্বরাশক্তি ধরে রাখা যাচ্ছে না। আবার হাওড় অঞ্চলের নরম মাটির জন্য প্রয়োজন হালকা যন্ত্র। ফলে চাষের মাটি অনুসারে চাহিদা বাড়লে বিভিন্ন ধরনের পাওয়ার টিলারের।

অধিকাংশ পাওয়ার টিলার ১২ হর্সপাওয়ার ইঞ্জিনে চালিত ১৮ ফলা বা লাঙ্গল। এসব হর্সপাওয়ার গভীরভাবে জমি চাষের অনুপযোগী। বিশেষ করে উত্তরবঙ্গ ও বরেন্দ্র অঞ্চলের শক্ত মাটিতে এসব সনাতন যন্ত্রপাতি হয়ে পরছে বাবহারের অনুপযোগী। তাই কৃষক এখন ঝুঁকে পরছে অধিক শক্তিশালি ক্ষমতা সম্পন্ন পাওয়ার টিলার এর দিকে। বারবার একই জমি চাষের ফলে জমির ৩.৫-৭ ইঞ্চি গভীরে তৈরি হচ্ছে শক্ত স্তর। যা প্রথাগত পাওয়ার টিলার দিয়ে সঠিকভাবে চাষ করা সম্ভব নয়।

এ বিষয়ে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্ম পাওয়ার অ্যান্ড মেশিনারি বিভাগের অধ্যাপক ও জরিপের সমন্বয়ক মো. মঞ্জুরুল আলম বলেন, সার্বিকভাবে কৃষিতে শ্রমিক সংকট ও উৎপাদন বাড়াতে কৃষি যান্ত্রিকীকরণের বিকল্প নেই। সঠিক যন্ত্র যেমন কৃষকের কাছে পৌঁছাতে হবে, তেমনি যন্ত্রটি যাতে সঠিকভাবে জমি চাষে ব্যবহার করা যায় সেদিকে নজর দিতে হবে। যেসব প্রতিষ্ঠান কৃষি যন্ত্রপাতি বিক্রয় করবে তাদের অবশ্যই সঠিক বিক্রয়োত্তর সেবা কৃষকের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে হবে। সরকারকেও এ বিষয়ে একটি সমন্বিত নীতিমালার মাধ্যমে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। জমি চাষের জন্য এখন বেশি হর্সপাওয়ার ইঞ্জিন চালিত পাওয়ার টিলারের প্রয়োজন।

জমির গভীরে চাষের জন্য এসিআই মটরস ২৮ মডেলের পাওয়ার টিলার নিয়ে এসেছে। যন্ত্রটি ২৫ হর্সপাওয়ার ইঞ্জিন চালিত। চাষের জন্য ২৮ টি ফলা বা লাঙ্গল থাকায় জমির ৫-৭ ইঞ্চি গভীরে চাষ করা যায়। এতে শক্ত স্তর ভেদ করে উর্বর চাষ ও অধিক ফলন পাওয়া সম্ভব। অন্যান্য পাওয়ার টিলার ১৮ ফলায় ৬০০ মিলিমিটার সারি ধরে চাষ করে, সেখানে আর ২৮ মডেলের পাওয়ার টিলার ২৮ ফলায় ৯০০ মিলিমিটার সারি চাষ করতে সক্ষম। তাই এতে জমি চাষ দেড়গুণ বেশি করা সম্ভব।

এ বিষয়ে এসিআই মটরসের পরিচালক (সার্ভিস অ্যান্ড প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট) ইঞ্জিনিয়ার আসিফ উদ্দীন বলেন, ২৫ হর্সপাওয়ার ইঞ্জিন ডাইরেক্ট ফুয়েল ইঞ্জেকশন সিস্টেম হওয়ায় তেল খরচ কমবে প্রায় ৭ শতাংশ। অন্যান্য পাওয়ার টিলার যেখানে প্রতি লিটার ডিজেলে ২৬ শতক চাষ হয়, আর ২৮ মডেলের পাওয়ার টিলার সেখানে চাষ করে ২৮ শতক জমি। দেশজুড়েই বিক্রয়ত্তোর সেবা ও খুচরা যন্ত্রাংশের নিশ্চয়তার মাধ্যমে কৃষককে সেবা দেওয়া হচ্ছে।

দেশের হাওর ও নিম্নভূমির কৃষকের চাষ আরো সহজতর করতে এসিআই মটরস নিয়ে এসেছে একটি স্মার্ট পাওয়ার টিলার। মেশিনটি সম্পূর্ণ নতুন লৌহ আকরিক থেকে তৈরির কারণে এর চেসিস বাজারের অন্য সব পাওয়ার টিলারের থেকে দিগুণ মজবুত ও অধিক দীর্ঘস্থায়ী। 

দেশের একমাত্র ওয়াকিং টাইপ পাওয়ার টিলার হলো এসিআই স্মার্ট পাওয়ার টিলার। এতে আছে ‘হ্যান্ড লিভার’ ও ‘বেল্ট টাইপ গিয়ার সিস্টেম’। যার সাহায্যে কৃষক খুব সহজে ইঞ্জিন আলাদা করা ছাড়াই পাওয়ার টিলার চালানো ও বন্ধ করতে পারে। এতে আরপিএম কনট্রোলার থাকায় কৃষক খুব সহজে তার গতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৯ নভেম্বর ২০১৮/হাসিবুল/সাইফ

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge