ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ মাঘ ১৪২৬, ২১ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

মুক্তিযোদ্ধাদের তীব্র প্রতিরোধে পালিয়ে যায় পাক সেনা

নোয়াখালী প্রতিনিধি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১২-০৭ ১০:৫৮:০৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১২-০৭ ১০:৫৮:০৯ এএম

আজ নোয়াখালী মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের ৭ ডিসেম্বর সম্মুখ যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের তীব্র প্রতিরোধের মুখে নোয়াখালী পিটিআই ট্রেনিং সেন্টার ক্যাম্প ছেড়ে পালিয়ে যায় পাক সেনারা।

অন্যদিকে হামলায় দিশেহারা হয়ে পাকিস্তানিদের এদেশীয় দালাল রাজাকাররাও আত্মসমর্পণ করে।

এদিন প্রত্যুষে বৃহত্তর নোয়াখালী জেলা বিএলএফ প্রধান মাহমুদুর রহমান বেলায়েত ও সি জোনের কমান্ডার ক্যাপ্টেন মোশারেফ হোসেনের নেতৃত্বে জেলা শহর মাইজদীকে শত্রুমুক্ত করার জন্য আক্রমন করে মুক্তিযোদ্ধারা। একযোগে তারা তিনটি রাজাকার ক্যাম্প দখল করে।

এভাবেই সেদিন দখলদার পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ও তাদের এদেশীয় দোসরদের হাত থেকে মুক্ত হয়েছিল নোয়াখালী।

নতুন প্রজন্মের কাছে ৭ ডিসেম্বরকে পরিচয় করিয়ে দিতে ১৯৯৬ সালের ২৮ ডিসেম্বর পাকবাহিনীর ক্যাম্প হিসেবে পরিচিত নোয়াখালী পিটিআই’র সম্মুখে স্থাপন করা হয় স্মরণিক স্তম্ভ ‘মুক্ত নোয়াখালী’। একই স্থানে বর্ধিত পরিসরে নোয়াখালী মুক্তমঞ্চও স্থাপন করা হয়েছে।

নোয়াখালী মুক্ত দিবস উপলক্ষ্যে নোয়াখালীতে আজ বিজয় র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করেছে বিভিন্ন সংগঠন।



নোয়াখালী/মাওলা সুজন/টিপু

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : নোয়াখালী, চট্টগ্রাম বিভাগ