ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০২ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘ত্রাণ নিয়ে দলমত নির্বিশেষে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান’

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৪-০৩ ২:২৯:০৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৪-০৩ ২:২৯:০৬ পিএম

করোনা মহামারিতে আর্থিক সহায়তা বা ত্রাণ নিয়ে দলমত নির্বিশেষে সকলকে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানিয়েছেন হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী৷

শুক্রবার (৩ মার্চ) দুপুরে গণমাধ্যমকে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এই আহবান জানান।

বিবৃতিতে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, ‘করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে পুরো দেশে লকডাউন পরিস্থিতি চলছে। দোকানপাট, রাস্তাঘাট, গণপরিবহণ সব কিছুই বন্ধ। শ্রমিক, দিনমজুর ও গরীব মানুষের কাজের কোন উৎস চালু নেই। করোনা আতঙ্কে কার্যত: মানুষ গৃহবন্দী হয়ে পড়েছেন।

এই পরিস্থিতিতে রুজি-রোজগার করতে না পারায় খেটে খাওয়া দিন মজুররা খাদ্য সংকটে অসহায় অবস্থায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তাই করোনায় সৃষ্ট সংকটময় পরিস্থিতিতে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের পাশে খাদ্যদ্রব্য, নগদ অর্থসহ জরুরি ত্রাণসামগ্রী নিয়ে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে।’

আল্লামা বাবুনগরী আরো বলেন, ‘দুর্গত অসহায় মানবতার পাশে সহযোগিতার হাত নিয়ে দাঁড়ানো অনেক সওয়াবের কাজ। এটা অন্যতম একটি ইবাদতও বটে।’

হেফাজত মহাসচিব বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের দুর্যোগপূর্ণ বিদ্যমান পরিস্থিতিতে ব্যক্তিগত বা সম্মিলিত উদ্যোগে দুঃস্থ ও অসহায়দের সাহায্যে এগিয়ে আসা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য।’

স্থানীয় প্রশাসন, সমাজের বিত্তবান, জনপ্রতিনিধি, সামাজিক ও সেবামূলক সংগঠন এবং বিশেষভাবে হেফাজত ইসলামের নেতৃবৃন্দকে যার যার অবস্থানে থেকে সাধ্যমতো ত্রাণসামগ্রী নিয়ে অসহায়দের দুয়ারে এগিয়ে যাওয়ার আহবান জানিয়ে হেফাজত মহাসচিব বলেন, ‘সহযোগিতা নিয়ে অসহায় মানবতার পাশে দাঁড়ানো মুসলমানদের জন্য ইমানি দায়িত্বও বটে।’

হেফাজত মহাসচিব বলেন, ‘খবরে দেখছি, বর্তমানে করোনার ভয়ে অনেক জায়গায় সাধারণ রোগীদেরকেও চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে না। হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে না। যার কারণে রোগীরা অসহায় হয়ে কষ্ট ভোগ করছেন এবং অনেকে বিনা চিকিৎসায় কঠিন সংকটে আছেন। এটা দুঃখজনক। রোগীদেরকে যথাযথ চিকিৎসা সেবা দিতে হবে। ইখলাস ও নিষ্ঠার সঙ্গে সেবার মহৎ কাজ করলে আল্লাহ তাআলার নিকট এর উত্তম বিনিময় পাওয়া যাবে।’

আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, ‘অগ্রিম যাকাত দেওয়া জায়েয আছে । তাই যাদের ওপর যাকাত ফরয, তারা করোনাভাইরাসের এই নাজুক পরিস্থিতিতে আগামী রমজানের যাকাত গরীব-দুঃখীদের মাঝে প্রদান করতে পারেন। ’

এ ছাড়াও সমর্থবানদেরকে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানিয়ে হেফাজত মহাসচিব বলেন, ‘বিপদগ্রস্ত ও অভাবীকে সাহায্য সহযোগিতা করলে মহান আল্লাহ তাআলা নিকট এর উত্তম বিনিময় পাওয়া যাবে।’


চট্টগ্রাম/রেজাউল/বুলাকী