Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ২৯ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৫ ১৪২৮ ||  ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

লক্কর ঝক্কর ফেরি নির্ভর পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথ

জাহিদুল  হক  চন্দন || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৪৩, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১২:২৩, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
লক্কর ঝক্কর ফেরি নির্ভর পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথ

ফেরি মেরামতে ভাসমান কারখানা মধুমতিতে কাজ করছেন শ্রমিকরা 

রাজধানী ঢাকার সঙ্গে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার প্রবেশদ্বার হিসেবে খ্যাত পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথ। প্রতিদিন এ নৌপথে প্রায় গড়ে দুই থেকে আড়াই হাজার যানবাহন পারাপার করা হয়ে থাকে। তবে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথ বন্ধ থাকলে বা কোনো উৎসব-পার্বনে এ নৌপথে যানবাহনের চাপ কয়েকগুণ বেড়ে যায়।

বাড়তি যানবাহনের চাপে এ নৌপথে চলাচল করা ফেরিগুলোতে পড়ে বাড়তি চাপ। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে চলাচল করা প্রতিটি ফেরি পুরনো আর লক্কর ঝক্কর হওয়ায় প্রায়ই যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়। এতে করে বাড়তি যানবাহনের চাপ বাড়লেও এ নৌপথে ফেরি পারাপারে গতি বাড়েনি। বাড়তি যানবাহনের চাপ সামাল দিতে বিভিন্ন সময় এ নৌপথে ফেরি সংযুক্ত করা হলেও প্রায় সময়ই কোন না কোন ফেরি ভাসমান কারখানা মধুমতিতে মেরামতে থাকে। এভাবেই বছরের পর বছর লক্কর ঝক্কর ও পুরনো ফেরি দিয়ে এ নৌপথে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। অনেক সময় ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ কমলেও শুধু এসকল পুরনো ফেরির কারনে ভোগান্তি পোহাতে হয় পরিববহন শ্রমিক ও সাধারণ যাত্রীদের।

সরেজমিনে শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টার দিকে ফেরি মেরামতের ভাসমান কারখানা মধুমতিতে দেখা যায়, বনলতা ও ভাষা শহীদ বরকত নামের দুটি ফেরিতে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ায় মেরামতের জন্য নিয়ে আসা হয়েছে। ভাষা শহীদ বরকত ফেরিতে ইঞ্জিনের পোর্ট পরিস্কার ও র‌্যাম মেরামতে কাজ করছেন শ্রমিকেরা।

অপরদিকে, বনলতার যান্ত্রিক ত্রুটি মেরামতে নেওয়া হচ্ছে ব্যবস্থা। এ দুটি ফেরি মেরামতে ৩ থেকে ৪ দিন সময় লাগতে পারে বলে ধারণা মেরামতে থাকা শ্রমিকদের।

যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা জানান, বহু বছর আগে মহাসড়কে যানজট দেখেছেন তারা। বর্তমান সরকারের চেষ্টায় মহাসড়কে আগের সেই ভোগান্তি যানজট নেই। তবে দেশের সার্বিক অবস্থার পরিবর্তন হলেও এ নৌপথে চলাচল করা ফেরিগুলোর কোনো পরিবর্তন হয়নি। বহু বছর আগের পুরনো আর লক্কর ঝক্কর ফেরি দিয়ে এখনও যানবাহন ও যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে। বহরে নতুন কোন ফেরি যুক্ত না হওয়াতে এসব পুরোনো ফেরি আধুনিক কোন সেবা দিতে পারে না। এসব ফেরির ইঞ্জিন বহু বছরের পুরনো হওয়াতে  বছর জুড়ে নদীর তীব্র স্রোত আর নাব্যতা সংকটে এসব ফেরি চলতে গিয়ে বিকল হয়ে পড়ে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ জানায়, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথ বন্ধ থাকায় এ নৌপথে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। এসব বাড়তি যানবাহন পারাপারের জন্য এনায়েতপুরি ও পরাণ নামের দুটি ফেরি মাওয়া ঘাট থেকে এনে ফেরি বহরে সংযুক্ত করা হয়েছে।

এ নৌপথে ৬টি ইউটিলিটি ফেরির মধ্যে ১টিতে যান্ত্রিক ত্রুটি থাকায় ৫টি, ১১টি রো রো ফেরির মধ্যে একটি বিকল হওয়ায় ১০টি এবং ২টি মাঝারি আকারের ফেরি দিয়ে যানবাহন ও যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে। এদিকে, আগষ্ট মাসের ৮ তারিখে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান নামের ফেরি বিকল হওয়ায় নারায়নগঞ্জ ডকইয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া, এসব ফেরির মধ্যে ১০টি ডেনমার্কের তৈরি ও ২টি চীনের তৈরি অনেক বছরের পুরনো ফেরি রয়েছে।

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিসি পাটুরিয়া ঘাট শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী ( ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ) মো. শরীফুল ইসলাম জানান, দুটি ফেরি দ্রুত মেরামতে কাজ করা হচ্ছে। আরেকটি ফেরি নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ডে মেরামত কাজ শেষ হলে ফেরি বহরে যুক্ত করা হবে। তবে যানবাহন ও যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক রাখতে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে বলেও জানান তিনি।

বুলাকী

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়