ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ৩০ জুন ২০২২ ||  আষাঢ় ১৬ ১৪২৯ ||  ২৯ জিলক্বদ ১৪৪৩

উইপোকার পেটে সনদপত্র, শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

অমরেশ দত্ত জয় || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫৫, ১৮ মে ২০২২  
উইপোকার পেটে সনদপত্র, শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

চাঁদপুরে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সনদপত্র উইপোকা খেয়ে ফেলায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে হতাশা ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে জেলার মতলব দক্ষিণের ধলাইতলী জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ে। 

বুধবার (১৮ মে) বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়। যদিও ঘটনাটি আরো আগে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নজরে পড়ে। সে সময় বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক থানায় জিডি করেন। কিন্তু এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা চাপা দিয়ে রাখার কারণে শুধু ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থী নয়, অভিভাবকদের মধ্যেও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, বস্তাবন্দি উইপোকা খাওয়া সনদপত্র প্রধান শিক্ষকের কক্ষে স্তূপ করে রাখা হয়েছে। বস্তার মধ্যে শিক্ষার্থীদের সনদপত্র, মার্কশিট এবং প্রশংসাপত্র রয়েছে। যেগুলোর অধিকাংশই  উইপোকায় খাওয়া এবং একাধিক জায়গায় ছেঁড়া।     

এ প্রসঙ্গে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম রাজা বলেন, ২০১৮ সাল পর্যন্ত প্রাক্তন প্রধান শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে সনদপত্রগুলো ছিল। সেগুলো তার ব্যক্তিগত ব্যবহৃত আলমিরাতে সংরক্ষিত ছিল। তিনি প্রথম বিষয়টি বুঝতে পেরে থানায় জিডি করেন।

এখন করণীয় কী জানতে চাইলে নুরুল ইসলাম প্রাক্তন প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলার পরামর্শ দেন। তবে এ বিষয়ে সনদপ্রার্থী শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করারও আশ্বাস দেন তিনি।  

বিদ্যালয় কমিটির সভাপতি মো. ইউছুফ পাটওয়ারী বলেন, এটা খুবই দুঃখজনক ও লজ্জাজনক বিষয়। এখন করণীয় কী আমাদের জানতে হবে। আমরা শিক্ষার্থীদের এ বিষয়ে সহযোগিতা করবো। 

এদিকে বিষয়টি জানতে পেরে অনেক শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে যোগাযোগ করছেন। তাদের কেউ কেউ ক্ষোভ প্রকাশ করে দায়িত্বে অবহেলার কারণে বিচারও দাবি করেছেন। যদিও তারা নাম প্রকাশ করতে চাইছেন না। তবে স্থানীয়রা ঘটনাটিকে ‘কতিপয় লোকের গাফিলতির জন্য বিদ্যালয়ের কলঙ্ক’ বলে মনে করছেন। 
 

চাঁদপুর/তারা 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়