ঢাকা     সোমবার   ১৭ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৩ ১৪৩১

চাঁদা না দেওয়ায় অপহরণের চেষ্টা, গ্রেপ্তার ২

রাজশাহী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৪০, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  
চাঁদা না দেওয়ায় অপহরণের চেষ্টা, গ্রেপ্তার ২

রাজশাহীতে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা না দেওয়ার কারণে এক ব্যাংক কর্মকর্তাকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে পুলিশ ওই ঘটনায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করে। রোববার (৫ জানুয়ারি) আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গতকাল শনিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে নগরীর উপশহর নিউমার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অপহরণের চেষ্টা করা ব্যাংক কর্মকর্তার নাম মারুফ হাসান (৪০)। তিনি একটি বেসরকারী ব্যাংকের ময়মনসিংহ শাখায় জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। রাজশাহী উপশহর এক নম্বর সেক্টরে তিনি বাড়ি করে বসবাস করেন। তার গ্রামের বাড়ি জেলার বাগমারা উপজেলার মুগাইপাড়া গ্রামে।

গ্রেপ্তার দুই আসামি হলেন- রাজশাহীর পবা উপজেলার বেতকুড়ি গ্রামের গোলাম মর্তুজার ছেলে মাবুদ সরকার অনিক (২৩) ও রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানার বোষপাড়া তেতুলতলা এলাকার সেলিম আমজাদের ছেলে সাকিবুল ইসলাম স্বাধীন (২১)।

অপহরণ চেষ্টার ঘটনায় ব্যাংক কর্মকর্তা মারুফ রাতেই বোয়ালিয়া থানায় মামলা করেছেন। 

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, আসামি মাবুদ সরকার অনিক তাঁর পূর্বপরিচিত। শনিবার রাতে মাবুদ বাসায় এসে ডাকাডাকি করেন। মাবুদ ডাক শুনে মারুফ নিচে নেমে আসেন। এরপর মাবুদ মারুফকে উপশহর নিউমার্কেট মোড়ে নিয়ে যান। সেখানে যাওয়ার পর আরেক আসামি সাকিবুল ইসলাম স্বাধীনসহ নাম না জানা অন্যরা মারুফকে ঘিরে ধরেন এবং ৩০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। মারুফ টাকা দিতে পারবেন না বললে আসামিরা তাকে মারধর করেন। পরে মারুফকে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হয়। এ সময় আশেপাশের লোকজন ও পথচারীরা ঘটনাটি পুলিশকে অবহিত করেন। তখন টহল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে। পরে পুলিশের সহায়তায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন মারুফ।

বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম জানান, অপহরণের চেষ্টা করার ঘটনায় ভুক্তভোগী ব্যাংক কর্মকর্তা থানায় মামলা করেছেন। মামলার দুই আসামিকে রোববার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

কেয়া/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ