ঢাকা     শনিবার   ২২ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৮ ১৪৩১

পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

পাবনা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৫৯, ১৯ মে ২০২৪  
পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

সংসদ সদস্য গালিবুর রহমান শরীফ

পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য গালিবুর রহমান শরীফের বিরুদ্ধে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন ও নির্বাচনে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (১৮ মে) এ বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ।

গালিবুর রহমান শরীফ আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী এমদাদুল হক রানা সরদারের পক্ষে প্রভাব বিস্তার করছেন বলে অভিযোগ করেছেন মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ।

অভিযোগ থেকে জানা গেছে, বিগত ১৩ মে প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী এমদাদুল হক রানা সরদারের পক্ষে কাজ করছেন পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য গালিবুর রহমান শরীফ। তিনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করে রানার পক্ষে নির্বাচনি প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, সংসদ সদস্য দলীয় বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে আনারস প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনে কাজ করার জন্য প্রভাবিত করছেন। এ ছাড়াও সাংসদ তার ছোট ভাই ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শিরহান শরীফ তমালকে আনারস প্রতীকের পক্ষে প্রচারণার জন্য মাঠে নামিয়েছেন।

আবুল কালাম আজাদের অভিযোগ, ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মন্ত্রী ও এমপিদের প্রভাব বিস্তার না করার জন্য নির্দেশনা ও বিধি রয়েছে। কিন্তু নির্দেশনা উপেক্ষা ও আচরণবিধি লংঘন করে সাংসদ গালিব শরীফ আনারস প্রতীকের পক্ষে বিভিন্নভাবে প্রভাব বিস্তারের জন্য কাজ করছেন। তিনি ঈশ্বরদীতে অবস্থান করে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে উপজেলা নির্বাচন নিয়ন্ত্রণ করছেন। তার এই কর্মকাণ্ড নির্বাচনি আচরণবিধির ২২ এর ১ ও ২ উপধারা এবং ৩১ ধারার সরাসরি লঙ্ঘন।

চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ বলেন, এমপি'র প্রভাব বিস্তারের কারণে ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও প্রভাবমুক্ত হওয়ার বিষয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আচরণবিধি লঙ্ঘনকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছি।

এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুনের সাথে কথা বলার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য পাবনা-৪ আসনের সাংসদ গালিবুর রহমান শরীফের মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

উল্লেখ্য, আগামী ২৯ মে ৩য় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের আওতায় ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

শাহীন/ফয়সাল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়