ঢাকা     শনিবার   ১৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১ ১৪৩১

তৃতীয় ধাপে পাবনার ৩ উপজেলায় ইভিএমে ভোটগ্রহণ

পাবনা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:২৬, ২৯ মে ২০২৪  
তৃতীয় ধাপে পাবনার ৩ উপজেলায় ইভিএমে ভোটগ্রহণ

৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে পাবনা সদর, আটঘরিয়া ও ঈশ্বরদী উপজেলায় ইভিএম পদ্ধতিতে নির্বাচন আয়োজন করা হয়েছে।

বুধবার (২৯ মে) সকাল আটটায় ইভিএম পদ্ধতিতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। তবে সকালের দিকে ভোটার উপস্থিতি কম দেখা গেছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি বাড়ার আশা করছে নির্বাচন কমিশন।

সকাল আটটায় পাবনা সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব সোহেল হাসান শাহীন নিজ কেন্দ্র বালিয়াহালট আমজাদ হোসেন উচ্চ বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

ভোটাধিকার প্রয়োগ শেষে মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব সোহেল হাসান শাহীন বলেন, প্রচার-প্রচারণা দুই একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই করতে পেরেছি। তবে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কালো টাকার দৌরাত্ম্যে সাধারণ ভোটাররা শঙ্কিত ও অস্বস্তিতে আছেন। কয়েকটি কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করা হবে এমন শঙ্কা থেকে প্রশাসনের নজরদারীর জোর দাবি জানাচ্ছি।

কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার, পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জহুরুল ইসলাম বলেন, কেন্দ্রের পরিবেশ ভালো। ২,১৯৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। ৭টি বুথের ৩টি পুরুষ ও ৪টি নারী বুথ রয়েছে। শুরুতে ভোটার কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি বাড়বে বলে আশা করছি।

কয়েকজন সাধারণ ভোটার বলেন, বুঝলে খুবই সহজ। ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটাধিকার প্রয়োগ অনেক সহজ মনে হয়েছে। কম সময়ে খুব দ্রুত ভোটাধিকার প্রয়োগ করা সম্ভব।

বেলা ৯টায় আটঘরিয়া উপজেলার আটঘরিয়া পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে নারী ও পুরুষ ভোটারদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো। এ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার, আটঘরিয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার ইসমত জেরিন বলেন, সকাল থেকেই নারী ও পুরুষ ভোটার আসতে শুরু করেছেন। এ কেন্দ্রে মোট ভোটার ২,৭২১ জন। ৮টি বুথে ভোটগ্রহণ চলছে। এখন পর্যন্ত ভোটের পরিবেশ ভালো।

তিন উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ১০ জন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৩ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এরমধ্যে পাবনা সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১১ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জন; আটঘরিয়া উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ জন এবং ঈশ্বরদী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

তিন উপজেলায় মোট ভোটার ৯ লাখ ৯ হাজার ৮৯১ জন। এরমধ্যে পাবনা সদর উপজেলায় ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৩৪৯ জন, আটঘরিয়া উপজেলায় ১ লাখ ৩৯ হাজার ১৭১ জন ও ঈশ্বরদী উপজেলায় ২ লাখ ৭৭ হাজার ৩৭১ জন।

মোট ২৯২টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে। এর মধ্যে পাবনা সদর উপজেলায় ১৬৩টি, আটঘরিয়া উপজেলায় ৪৫টি ও ঈশ্বরদী উপজেলায় ৮৪টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। র‍্যাব, পুলিশ, আনসার সদস্যের পাশাপাশি বিজিবি মোতায়েন রয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে কয়েকটি দল দায়িত্ব পালন করছেন।

শাহীন/ফয়সাল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়