ঢাকা     শনিবার   ২০ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৫ ১৪৩১

নিখোঁজের ৪ দিন পর সেপটিক ট্যাংকে মিললো শিশুর মরদেহ

নরসিংদী প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৩৯, ২৫ জুন ২০২৪   আপডেট: ১০:৪৫, ২৫ জুন ২০২৪
নিখোঁজের ৪ দিন পর সেপটিক ট্যাংকে মিললো শিশুর মরদেহ

নরসিংদীর পলাশে নিখোঁজের চারদিন পর মাইশা আক্তার নামে সাড়ে ৩ বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) সকাল সাড়ে ছয়টায় উপজেলার ডাংগা ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের নিজ বাড়ির সেফটিক ট্যাংক থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। 

এ ঘটনায় জালাল শেখ (৪৯), তার স্ত্রী মাহফুজা ও ছেলে বিল্লালকে আটক করেছে র‍্যাব। আটককৃত ব্যক্তিদের বাড়ি কুষ্টিয়ার কুমারখালি গ্রামে। পলাশে তারা একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। 

নিহত মাইশা আক্তার জয়নগর গ্রামের মেহেদী হাসানের মেয়ে। সে শুক্রবার (২১ জুন) থেকে নিখোঁজ ছিলো।

ডাংগা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার বেলায়েত হোসেন ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মাইশা শুক্রবার বিকেল থেকে নিখোঁজ ছিল। পরে তাকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে এ ঘটনায় রাতেই পলাশ থানায় জিডি করেন মাইশার বাবা মেহেদী হাসান। এ ঘটনার চারদিন অতিবাহিত হলে র‍্যাব কর্তৃক জালালকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর আজ সকালে নিজ বাড়ির সেফটিক ট্যাংক থেকে মাইশার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে কি কারণে মাইশাকে হত্যা করেছে সে বিষয়ে তাৎক্ষণিক কিছু জানাতে পারেনি পুলিশ। এ ঘটনায় জালাল শেখ, স্ত্রী মাহফুজা ও ছেলে বিল্লালকে আটক করেছে র‍্যাব। 

পলাশ থানার ওসি তদন্ত মো. জসিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শিশু মাইশা নিখোঁজের ঘটনায় ডাংগা থেকে জামাল শেখ নামে বাড়ির ভাড়াটিয়াকে র‍্যাব আটকের পর তার দেওয়া তথ্য মতে বাড়ির সেফটিক ট্যাংক থেকে মাইশার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। আমরা মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করে জিজ্ঞেসাবাদ করা হচ্ছে। শিশুকে কি কারণে হত্যা করা হয়েছে তা তদন্তের পর বিস্তারিত জানাতে পারবো।

হৃদয়/ইমন

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়