Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

প্রকৌশল খাতে সর্বোচ্চ রিটার্ন পেলেন বিনিয়োগকারীরা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:১৪, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১  
প্রকৌশল খাতে সর্বোচ্চ রিটার্ন পেলেন বিনিয়োগকারীরা

দেশের পুঁজিবাজারে আগের চেয়ে গত সপ্তাহে লেনদেন প্রায় অর্ধেক কমেছে। এ সময় বিনিয়োগকারীরা প্রকৌশল খাত থেকে সবচেয়ে বেশি রিটার্ন পেয়েছেন। এ খাত থেকে আলোচ্য সময়ে বিনিয়োগকারীরা ৬ দশমিক ২ শতাংশ রিটার্ন পেয়েছেন।

বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য মতে, প্রকৌশল খাতের বাজার মূলধনের পরিমাণ ৫৪ হাজার ৮১১ কোটি টাকা। গত সপ্তাহে রিটার্নের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে আইটি খাত। এ খাত থেকে বিনিয়োগকারীরা ৫ দশমিক ৬ শতাংশ রিটার্ন পেয়েছে। খাতটির বাজার মূলধনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৪৫৫ কোটি টাকা।  

সেবা খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোতে বিনিয়োগ করে বিনিয়োগকারীরা ৩ দশমিক ৫ শতাংশ রিটার্ন পেয়েছেন। এ খাতের বাজার মূলধন ১ হাজার ৭৮০ কোটি টাকা। সিমেন্ট খাত থেকে ২ দশমিক ৯ শতাংশ রিটার্ন পেয়েছে বিনিয়োগকারীরা। এ খাতের বাজার মূলধন ৯ হাজার ৪৮১ কোটি টাকা।

সাধারণ বিমা খাত থেকে বিনিয়োগকারীরা ১ দশমিক ৮ শতাংশ রিটার্ন পেয়েছেন। এ খাতের বাজার মূলধনের পরিমাণ ৮ হাজার ৭৪০ কোটি টাকা।

জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোতে বিনিয়োগের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা ১ দশমিক ৭ শতাংশ রিটার্ন পেয়েছেন। এ খাতের বাজার মূলধনের পরিমাণ ৪৩ হাজার ৫৮৮ কোটি টাকা।

এছাড়া, কাগজ খাতে বিনিয়োগ করে বিনিয়োগকারীরা দশমিক ৬ শতাংশ, টেলিকম এবং চামড়া খাত থেকে দশমিক ২ শতাংশ, ভ্রমণ খাত থেকে দশমিক ১ শতাংশ রিটার্ন পেয়েছে বিনিয়োগকারীরা।

পুঁজিবাজারে ২০টি খাতের কোম্পানির মধ্যে গত সপ্তাহে বিনিয়োগকারীরা ১০টি থেকে রিটার্ন পেয়েছেন। যেসব খাত থেকে রিটার্ন পাননি বিনিয়োগকারীরা সেগুলো হচ্ছে, বস্ত্র, সিরামিক, মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ব্যাংক, ফার্মাসিউটিক্যালস, লাইফ ইন্স্যুরেন্স, নন ব্যাংকিং আর্থিক খাত, পাট, খাদ্য-আনুষাঙ্গিক এবং বিবিধ খাত।

ঢাকা/এনএফ/ইভা 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে