Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

সফট স্কিল নেই বলে শিক্ষিত বেকার বেশি: শিক্ষামন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:২৫, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১  
সফট স্কিল নেই বলে শিক্ষিত বেকার বেশি: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি (ফাইল ছবি)

শিক্ষা ব‌্যবস্থায় পরিবর্তন আনার ওপর  গুরুত্ব আরোপ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘মূল ধারার শিক্ষা ব্যবস্থার পাশাপাশি সফট স্কিল বা নরম (সৃজনশীল) দক্ষতা না থাকায় দেশে শিক্ষিত বেকার বাড়ছে। এ ক্ষেত্রে পরিবর্তন আনতে আন্তঃমন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে সঙ্গে নিয়ে কাজ চলছে।’

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা চেম্বার আয়োজিত এক ওয়েবিনারে অংশ নিয়ে দীপু মনি এসব কথা বলেন। 

এছাড়া,‘ইন্ডাস্ট্রি-অ‌্যাকাডেমিয়া লিঙ্কেজ: দ্য নিউ প্রন্টিয়ার’ শীর্ষক সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেছেন, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যায় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাজী শহদুল্লাহ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, ঢাকা চেম্বার সভাপতি রিজওয়ান রাহমান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিল্পমালিকরা মনে করছেন, দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা সেই পুরনো ব্যবস্থায় চলছে। যা কোনো কাজে আসছে না। আবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মনে করছে, তারা সঠিক শিক্ষা দিচ্ছে। আমি বলবো, মূলত দুটার কোনোটিই ঠিক নয়।’

উদাহরণ দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘যারা চাকরি দিচ্ছেন, তারা বলছেন যোগ্য লোক পাচ্ছেন না। আবার যারা চাকরি খুঁজছেন, তারা বলেন চাহিদামতো চাকরি পাচ্ছেন না। একে অন‌্যকে দায়ী করা ঠিক নয়।’  


অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টের চেয়ারম্যান সবুর খান।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন, অ্যাপেক্স ফুটওয়্যারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর, রিচার্জ অ্যান্ড ইনোভেশন সেন্টার ফর সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং পরিচালক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান তালুকদার, মেঘনা গ্রুপের পরিচালক তাহমিনা বিনতে মুস্তফা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সৈয়দ ফারহাত আনোয়ার প্রমুখ।

ঢাকা/শিশির/এনই

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে