ঢাকা     বুধবার   ২২ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪৩১

পুঁজিবাজারে পতন ঠেকাতে নতুন সার্কিট ব্রেকার 

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:১৮, ২৪ এপ্রিল ২০২৪  
পুঁজিবাজারে পতন ঠেকাতে নতুন সার্কিট ব্রেকার 

পুঁজিবাজারে টানা দর পতন অব্যাহত রয়েছে। এর পরিস্থিতিতে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দাম কমার নতুন সীমা বা সার্কিট ব্রেকার বেঁধে দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী কোম্পনিগুলোর শেয়ারের দর একদিনে সর্বোচ্চ কমতে পারবে ৩ শতাংশ। তবে সর্বোচ্চ দর আগের নির্দেশনা অনুযায়ী বহাল থাকবে।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম স্বাক্ষরিত এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

বিএসইসির এই নতুন নির্দেশনা আগামীকাল (২৫ এপ্রিল) থেকে কার্যকর হবে। তবে এক্ষেত্রে ফ্লোর প্রাইসে থাকা ৬টি কোম্পানি এ নির্দেশনার আওতার বাইরে থাকবে। তবে মূল্য হ্রাসের নতুন সীমা বেঁধে দেওয়া হলেও মূল্য বৃদ্ধির ক্ষেত্রে আগের সীমা বহাল আছে। শেয়ারের আগের দিনের বাজার মূল্যের আলোকে পর দিন মূল্য সর্বনিম্ন ৩.৭৫ শতাংশ থেকে সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়তে পারবে। 

বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে এবং সিকিউরিটিজ বাজারের উন্নয়নের জন্য, স্টক এক্সচেঞ্জ ট্রেডিংয়ে তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজের শেয়ারের মূল্যের গতিবিধি নিয়ন্ত্রণের জন্য নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন।

২০২১ সালের ১৭ জুন বিএসইসি ফ্লোর প্রাইজ তুলে দিয়ে নতুন সার্কিট ব্রেকার আরোপ করে। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী, যেসব কোম্পানির শেয়ার দর ২০০ টাকার মধ্যে সেগুলোর সার্কিট ব্রেকার ১০ শতাংশ। অর্থাৎ আলোচ্য শেয়ারের দর দৈনিক সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ বাড়তে এবং সর্বনিম্ন ১০ শতাংশ কমতে পারত। এছাড়া যেসব শেয়ারের দর ২০০ থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে রয়েছে, সেগুলোর সার্কিট ব্রেকার ৮.৭৫ শতাংশ, শেয়ার দর ৫০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে থাকলে সার্কিট ব্রেকার ৭.৫০ শতাংশ, শেয়ার দর ১ হাজার টাকা থেকে ২ হাজার টাকার মধ্যে থাকলে সার্কিট ব্রেকার ৬.২৫ শতাংশ, শেয়ার দর ২ হাজার টাকা থেকে ৫ হাজার টাকার মধ্যে থাকলে সার্কিট ব্রেকার ৫ শতাংশ এবং শেয়ার দর ৫ হাজার টাকার বেশি থাকলে সার্কিট ব্রেকার ৩.৭৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়। 
 

ঢাকা/এনটি/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়