Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ২৩ এপ্রিল ২০২১ ||  বৈশাখ ১০ ১৪২৮ ||  ০৯ রমজান ১৪৪২

‘মৃত্যুর পরও যদি আমাকে স্মরণ করেন কৃতজ্ঞ থাকব’

প্রকাশিত: ১৪:০৩, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ০৭:৫৪, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১
‘মৃত্যুর পরও যদি আমাকে স্মরণ করেন কৃতজ্ঞ থাকব’

‘আমি চিরদিন থাকব না, আমাকে বাঁচিয়ে রাখার দায়িত্ব আপনাদের। আমার মৃত্যুর পরও যদি আপনারা আমাকে স্মরণ করেন কৃতজ্ঞ থাকব। আমি না থাকলেও আমার আত্না থাকবে। দর্শকদের কাছে এটুকুই প্রত্যাশা।’

কথাগুলো বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের। তাঁর জীবদ্দশায় বেশ কয়েকবার মৃত্যুর গুজব শোনা যায়। এতে তিনি ব্যথিত হয়ে কথাগুলো বলেছিলেন।

মৃত্যুর গুজব নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এটিএম শামসুজ্জামান বলেন, ‘কম করে হলেও বিশবার এমন গুঞ্জন উঠেছে। একদিন বললাম, আমি মরার আগে আপনারা আমাকে মারতে চাচ্ছেন কেন? আমি যেদিন পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে ওপারে চলে যাব, যদি পারেন সেদিন আমাকে ঠেকিয়ে রাখবেন।’

খ্যাতিমান এই অভিনেতা গত ২০ ফেব্রুয়ারি সকালে না-ফেরার দেশে চলে যান। তাকে জুরাইনে ছেলের পাশে সামাহিত করা হয়। ১৯৬১ সালে পরিচালক উদয়ন চৌধুরীর ‘বিষকন্যা’ চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করেন এটিএম শামসুজ্জামান। প্রথম দিকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেও চরিত্রাভিনেতা হিসেবে তিনি প্রশংসিত হন। আমজাদ হোসেনের ‘নয়নমণি’ চলচ্চিত্রে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন তিনি।

এটিএম শামসুজ্জামান পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার একুশে পদক লাভ করেন এই শিল্পী।
 

রাহাত সাইফুল/তারা

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়