ঢাকা     শনিবার   ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২১ ১৪২৯

মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু জর্জ হ্যারিসন

শাহ মতিন টিপু || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:৩১, ২৯ নভেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৩:১৬, ২৯ নভেম্বর ২০২২
মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু জর্জ হ্যারিসন

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধকালে যারা বাংলাদেশের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তাদেরই অন্যতম একজন জর্জ হ্যারিসন।

বিংশ শতাব্দীর অত্যন্ত প্রতিভাবান এই জনপ্রিয় গায়ক ও গিটারিস্টের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০০১ সালের ২৯ নভেম্বর মারা যান এই কিংবদন্তি। তখন তার বয়স মাত্র ৫৮ বছর। যুক্তরাষ্ট্রে ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেসে বেভারলি হিলসের হেদার রোডে পল ম্যাককার্থির বাড়িতে মারা যান তিনি।  

বিশ্বজুড়ে কোটি ভক্তের হৃদয়ে আলোড়িত জর্জ হ্যারিসনের নাম বাংলাদেশ ও বাঙালির কাছে প্রকৃত বন্ধু হিসেবেই উচ্চারিত হয়। বাংলাদেশের সঙ্গে তার সম্পর্কটা আত্মার এবং হৃদয়ের। এ দেশের কঠিন বিপদের সময় তিনি দাঁড়িয়েছিলেন পাশে। চরম দুর্দিনে বাড়িয়েছিলেন সাহায্যের হাত। 

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় তার নেওয়া একটি উদ্যোগই নাড়া দিয়েছিল পৃথিবীর মানুষকে। সবাইকে গানে গানে জানিয়েছিলেন-পাক হানাদার বাহিনী বাংলার মানুষের ওপর কী নিপীড়ন আর হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে। তুলে ধরেছিলেন প্রতিবেশী ভারতে শরণার্থী হওয়া কোটি মানুষের দুঃসহ বেদনার কথা। 

১৯৭১ সালের ১ আগস্ট কিংবদন্তি সেতারবাদক পণ্ডিত রবিশংকরের অনুরোধে একটি কনসার্টের আয়োজন করেছিলেন এই ব্রিটিশ সংগীতশিল্পী। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ঐতিহাসিক মেডিসন স্কয়ার গার্ডেনে আয়োজিত ‘দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’ গোটা বিশ্বের মানুষের কাছে নিয়ে গিয়েছিলো বাংলাদেশের ন্যায়সঙ্গত দাবিকে। কনসার্ট থেকে পাওয়া অর্থ ইউনিসেফের মাধ্যমে খরচ হয়েছিলো বাংলাদেশি শরণার্থীদের জন্য।

বাংলাদেশের মহান বন্ধু জর্জ হ্যারিসনের জন্ম ১৯৪৩ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি ইংল্যান্ডের লিভারপুলে। তবে জীবনের অনেকটা সময় কাটিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে। ১৯৬৬ সালে ব্রিটিশ মডেল ও ফটোগ্রাফার প্যাট্রিসিয়া অ্যান বয়েডকে বিয়ে করেন জর্জ হ্যারিসন। এরপর এক দশকেরও বেশি সময়ের দাম্পত্য জীবন শেষ হয় ১৯৭৭ সালে বিবাহবিচ্ছেদের মধ্য দিয়ে। পরের বছর জর্জ হ্যারিসন আমেরিকান লেখক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা অলিভিয়া ত্রিনিদাদ হ্যারিসনকে বিয়ে করেন। ১৯৭৮ সালের ১ আগস্ট জন্ম হয় তাদের একমাত্র সন্তান ডানি হ্যারিসনের। তাদের এ সন্তান জন্মের তারিখটি ছিল দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশের বর্ষপূর্তির দিন।

জর্জ হ্যারিসন এত বড় একজন মানুষ ছিলেন, গোটা পৃথিবীটাই যার দেশ। যেখানে মানুষ-যেখানে মানবতা, সেখানেই তার মতো নিবেদিতপ্রাণ মানুষ। সংগীতে দুনিয়া কাঁপিয়েছেন। পৃথিবী তাকে মনে রাখবে। বাংলাদেশের মানুষও তাকে মনে রাখবে গভীর ভালোবাসায়। 

/টিপু/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়