ঢাকা, বুধবার, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

আয়েশা হত্যা : একমাত্র আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৭ ৮:০১:৫১ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৭ ৮:০১:৫১ পিএম
ফাইল ফটো

রাজধানীর গেন্ডারিয়ার দীননাথ সেন এলাকায় দুই বছরের শিশুকে তিনতলা থেকে ফেলে হত্যা মামলায় একমাত্র আসামি জান্নাতুল ওয়াইশ ওরফে নাহিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণ করেছেন আদালত।

সোমবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইলিয়াস মিয়া এ চার্জশিট গ্রহণ করেন। এরপর মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত হওয়ায় মামলাটি সিএমএম বরাবর প্রেরণের আদেশ দেন। সিএমএম মামলাটি পরবর্তী বিচারের জন্য মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলি আদেশ দেবেন বলে জানা গেছে।

এরআগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই’র উপ-পুলিশ পরিদর্শক সাদেকুর রহমান নাহিদকে আসামিকে করে চার্জশিট দাখিল করেন।

চার্জশিটে বলা হয়, ‘ধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে দুই বছরের শিশু আয়েশা মনিকে পরিকল্পিতভাবে তিন তলার বারান্দা থেকে ফেলে হত্যা করে নাহিদ।’

প্রসঙ্গত, দীননাথ সেন রোডের ৫৩/১/ছ নম্বর চার তলা বাড়ির পাশে টিনশেড বস্তিতে চার মেয়েকে নিয়ে বাস আয়েশার বাবা-মায়ের।

২০১৯ সালের ৫ জানুয়ারি বিকেলে বাসায় গ্যাস সংযোগ না থাকায় আয়েশার মা পাশের বাসায় রান্না করতে যান। তখন আয়েশা ঘরেই ছিল। আয়েশার মা পরে ঘরে এসে মেয়েকে দেখতে না পেয়ে অস্থির হয়ে পড়েন।

সন্ধ্যার পর আশপাশের মানুষের চেঁচামেচি শুনে ছুটে যান বাসার পাশের গলিতে। সেখানে গিয়ে দেখেন ময়লার ট্রলির পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে শিশু আয়েশা। দ্রুত উদ্ধার করে তাকে ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

পরে অবস্থার অবনতি হলে শিশুটিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব‌্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

৭ জানুয়ারি শিশুটির বাবা মো. ইদ্রিস বাদী হয়ে গেন্ডারিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় অভিযুক্ত নাহিদ হোসেন শিশুটিকে ধর্ষণের পর চারতলা বাড়ির তিনতলা থেকে নিচে ফেলে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

মামলা দায়েরের পর নাহিদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর থেকে নাহিদ কারাগারেই আছেন। এদিকে নাহিদের মেয়ে ফাতিহা খান বুশরা বাবার বিরুদ্ধে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।


ঢাকা/মামুন খান/সনি