Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৫ জুলাই ২০২১ ||  শ্রাবণ ১০ ১৪২৮ ||  ১৩ জিলহজ ১৪৪২

আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন কাজী আনিছ

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৩৩, ২২ জুন ২০২১  
আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন কাজী আনিছ

ফাইল ছবি

অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন যুবলীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক কাজী আনিছুর রহমান।

গত ৯ মার্চ ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালত ২০ হাজার টাকা মুচলেকায় তার জামিন মঞ্জুর করেন। মঙ্গলবার (২২ জুন) জামিনের বিষয়টি আদালতের দুদক নিবন্ধন শাখা থেকে জানা গেছে।

ওই দিন অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসেনের মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন কাজী আনিছ। জামিন শুনানিতে অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘কাজী আনিছুর রহমান দীর্ঘদিন ধরে একাধিক ট্রেড লাইসেন্সের মাধ্যমে ঠিকাদারি কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন। তার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান কোনো অনিয়মের সাথে জড়িত না। তার বিরুদ্ধে যে মামলা দায়ের করা হয়েছে তা সঠিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে করা হয়নি। মামলার এজাহারে উল্লেখকৃত স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি আসামি প্রথম শ্রেণির ঠিকাদারি কাজের বিনিময়ে পেমেন্ট অর্ডারের মাধ্যমে ও পৈত্রিক ওয়ারিশ সূত্রে পেয়েছেন।  তিনি জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করেন নাই। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা সত্য নয়। শুধুমাত্র অনুমানের ভিত্তিতে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। হয়রানি করতে তার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়। তার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত কোনো সম্পদ বা সম্পত্তি নেই।  দেশে ও বিদেশে বিপুল পরিমাণ অর্থ সম্পদ অর্জনের যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সত্য না।  প্রতিপক্ষের ইন্ধনের কারণে মামলার উদ্ভব হয়েছে। আনিছুর অসুস্থ বিধায় মানবিক কারণে তার জামিন প্রার্থনা করেন এ আইনজীবী।

দুদকের পক্ষে মীর আহম্মেদ আলী সালাম জামিনের জোড়ালো আপত্তি জানান।  উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত কাজী আনিছুরকে জামিনের আদেশ দেন।

১২ কোটি ৮০ লাখ ৬০ হাজার ৯২০ টাকার অবৈধ সম্পদ জ্ঞাত আয়ের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণভাবে অর্জনের অভিযোগে ২০১৯ সালের ২৯ অক্টোবর দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১-এ মামলা করেন কমিশনের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান। ওইদিন কাজী আনিছের স্ত্রী সুমি রহমানের বিরুদ্ধে এক কোটি ৩১ লাখ ১৬ হাজার ৫০০ টাকার অবৈধ সম্পদ জ্ঞাত আয়ের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণভাবে অর্জনের অভিযোগেও মামলা দায়ের করেন গুলশান আনোয়ার প্রধান। মামলাটি তদন্ত করে গত ৮ ফেব্রুয়ার দুজনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি চার্জশিট  দাখিল করেন একই কর্মকর্তা। মামলাটি দুটি চার্জশিট গ্রহণের পর্যায়ে রয়েছে। এদিকে, সুমি রহমানও আত্মসমর্পণ করে গত বছরের ২৬ নভেম্বর জামিন নেন।

ঢাকা/মামুন/এসবি/

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়