ঢাকা     সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৯ ||  ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

নিউ ইয়র্কে স্থায়ী মিশন ও কনস‌্যুলেটে শোক দিবস পালন

ডেস্ক রিপোর্ট || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:৫৮, ১৬ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
নিউ ইয়র্কে স্থায়ী মিশন ও কনস‌্যুলেটে শোক দিবস পালন

নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন ও বাংলাদেশ কনস‌্যুলেটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে।

শনিবার (১৫ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে শোক দিবসের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। করোনা মহামারির পরিপ্রেক্ষিতে নিউইয়র্ক সিটি কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী সামাজিক দূরত্ব মেনে কর্মসূচি পালন করা হয়।

জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করার মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হয়। এ সময় জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে অনুষ্ঠানের শুরুতেই জাতির পিতা, বঙ্গমাতা এবং তাদের পরিবারের শহীদ সদস‌্যসহ ১৫ আগস্টের সব শহীদের বিদেহী আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। পরে শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

মোনাজাতের পর জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমার নেতৃত্বে মিশনের সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে রক্ষিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জানান। এরপর দিবসটি উপলক্ষে দেওয়া রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। পরে জাতির পিতার জীবন ও কর্মের ওপর প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

অন‌্যদিকে, নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ কনস‌্যুলেটে অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা কনস্যুলেটের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করার সঙ্গে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন।

কনসাল জেনারেল জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। জাতির পিতা, তার পরিবারের অন্যান্য শহীদ সদস্য ও শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মার শান্তি কামনায় ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে জাতির পিতার ওপর নির্মিত প্রামাণ‌্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

‘মুজিব বর্ষ’ উপলক্ষে কনস্যুলেটের হল রুমে স্থাপিত ‘মুজিব গ্যালারি’র উদ্বোধন করেন কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা। এছাড়া, কনস্যুলেটের ওয়েবসাইটে ’বঙ্গবন্ধু ফটো গ্যালারি’ নামে একটি ভার্চুয়াল ‘মুজিব গ্যালারি’র [https://www.bdcgny.org/gallery?act=photo] উদ্বোধন করেন কনসাল জেনারেল। পরে কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসার সভাপতিত্বে আলোচনায় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য, ইউনেস্কো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিব বর্ষ’ যৌথভাবে পালন করছে। এটি বিশ্বনেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর অনন্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি বলে কনসাল জেনারেল উল্লেখ করেন। তিনি জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে পাঠানো ইউনেস্কোর মহাপরিচালকের বাণী পাঠ করেন। 

অনুষ্ঠান শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবারের অন্যান্য শহীদ সদস্য ও শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মার মাগফেরাত এবং দেশের অব্যাহত সমৃদ্ধির জন্য মোনাজাত করা হয়।

নাইজেরিয়ার রাজধানী আবুজায় বাংলাদেশ হাইকমিশনেও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে।

ঢাকা/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়