RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ৩০ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ১৫ ১৪২৭ ||  ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

‘সৌদি-ওমান প্রবাসীরা ফিরতে পারবেন ১ অক্টোবর থেকে’

কূটনৈতিক প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:০৫, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৩৪, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
‘সৌদি-ওমান প্রবাসীরা ফিরতে পারবেন ১ অক্টোবর থেকে’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, সৌদি আরবগামী বাতিল হওয়া সব রুটের ফ্লাইট ১ অক্টোবর থেকে চালু হবে। ফ্লাইট অনুযায়ী সবাই দেশটিতে কাজে যোগ দিতে পারবেন। ওমানের প্রবাসীরাও  একইদিন থেকে কাজে ফিরতে পারবেন। তবে পিসিআর টেস্টের রিপোর্ট থাকতে হবে এবং পৌঁছে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের তিনি এসব তথ্য জানান। 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সৌদি আরবে কাজে যোগদানের বিষয়ে যে উৎকণ্ঠা সৃষ্টি হয়েছিল, আমরা আশা করছি তার সুষ্ঠু সমাধান হয়েছে। এরপরও আমরা বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি।’

প্রধানমন্ত্রী প্রবাসীদের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া বিষয়ে আগ্রহী জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার প্রবাসীদের বিষয়ে বরাবরই আন্তরিক হয়ে কাজ করছে।’

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে এরই মধ্যে চতুর্থ দফায় আরও ২৪ দিন প্রবাসীদের আকামার মেয়াদ বাড়িয়েছে সৌদি সরকার। ফ্লাইট পরিচালনার জন্য বাংলাদেশকে ল্যান্ডিং পারমিশনও দেওয়া হয়েছে। ফলে এরইমধ্যে যেসব প্রবাসী সৌদি থেকে রিটার্ন টিকিটে বাংলাদেশে এসে লকডাউনের কারণে আর ফিরতে পারেননি, তাদেরকে সৌদি ফেরাতে দুটি বিশেষ ফ্লাইট ঘোষণা করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। আগামী ২৬ ও ২৭ সেপ্টেম্বর বিমান বিশেষ এই ফ্লাইট দুইটি পরিচালনা করবে।

৫৪ হাজার রোহিঙ্গাকে পাসপোর্ট দিতে সৌদি আরবের চাপের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আশির দশকে বাংলাদেশ থেকে অনেক রোহিঙ্গা নিয়ে গিয়েছিল সৌদি আরব। এখন সেসব রোহিঙ্গার কোনো ডকুমেন্ট নেই। তাদের ছেলেমেয়েরা সেখানেই জন্ম নিয়েছে। সেখানেই বেড়ে উঠেছে। তারা বাংলাও জানে না। সৌদি সরকার তাদের জন্য পাসপোর্ট দিতে আমাদের অনুরোধ করেছে। কেননা সৌদি আরব তার দেশে কোনো রাষ্ট্রহীন লোক রাখে না। আমরা সৌদি আরবকে জানিয়েছি কোনো রোহিঙ্গার বাংলাদেশি পাসপোর্ট  থাকলেই আমরা সেটা রিইস্যু করতে পারি, অন্যথায় নয়। তবে সৌদি আরব জানিয়েছে, পাসপোর্ট ইস্যু না করা মানেই তাদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো নয়।

ড. মোমেন বলেন, সৌদি আরবের জেলে ৪৬২ জন রোহিঙ্গা আছেন। আমরা মিশন থেকে যাচাই-বাছাই করে দেখেছি, তাদের মধ্যে ৭০- ৮০ জনের বাংলাদেশের পাসপোর্ট আছে। তাই কেবল এই পাসপোর্টধারীদেরই ফেরত আনা যেতে পারে।

মন্ত্রী আরও বলেন, সৌদিতে অবস্থান করা কোনো রোহিঙ্গার যদি আগে বাংলাদেশি পাসপোর্ট থেকে থাকে, তাহলেই সেটা রিইস্যু করা হবে। তবে যাদের কোনো বাংলাদেশি পাসপোর্ট নেই, তাদেরটা পুনরায় ইস্যু হবে না।

সৌদি থেকে রোহিঙ্গাদের ফেরত না আনলে বাংলাদেশের প্রবাসীদের ফেরত পাঠানো হবে- এ বিষয়ে জানতে চাইলে ড. মোমেন বলেন, এটা দুষ্টু লোকজন প্রচার করছে, এটা ঠিক নয়।

ঢাকা/হাসান/ইভা 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়