ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২৩ ১৪২৯

ইভিএমে ভোট কারচুপি করতে চায় আ.লীগ: মোশাররফ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৩১, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২  
ইভিএমে ভোট কারচুপি করতে চায় আ.লীগ: মোশাররফ

প্রেস ক্লাবে আ স ম হান্নান শাহ’র স্মরণসভায় বক্তব্য রাখেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন

আওয়ামী লীগ সরকার ইভিএম দিয়ে আগামী নির্বাচনে ভোট কারচুপি করতে চায় বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেছেন, ‘জনগণ ইভিএম মেশিন দিয়ে নয়, নিজের হাতে ব্যালটে ভোট দেবেন। মানুষ হাতে ভোট দিতেই বেশি পছন্দ করে।’

মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ’র ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় এসব কথা বলেন তিনি।

খোন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ২০১৮ সালে দিনের ভোট রাতে করেছে। এবার আর তাদের সেটা করতে দেওয়া যাবে না। জনগণ জেগে উঠেছে। তাই, তারা (আওয়ামী লীগ) ইভিএমের মাধ্যমে ভোট ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন ইভিএম মেশিন কেনার জন্য ৮ হাজার কোটি টাকা খরচ করছে। অথচ দেশের মানুষ খেতে পারে না। আজ দেশে প্রায় দুর্ভিক্ষের অবস্থা। যেটা মানুষ মানতে চায় না, সেই মেশিন কেনার জন্য কেন এত টাকা খরচ করতে চায় তারা?’

বিএনপির এই প্রবীণ নেতা বলেন, ‘বিবিসির সাংবাদিক প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞেস করেছেন, আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি না? গত নির্বাচনগুলো তো সুষ্ঠু হয়নি। জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আগামী নির্বাচন অবশ্যই সুষ্ঠু হবে। কিন্তু, তার এ কথা বাংলাদেশের মানুষ এখন আর বিশ্বাস করে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের মানুষ ভুলে যায়নি, আওয়ামী লীগ ২০১৪ সালে ১৫৪টি আসনে বিনা ভোটে কিভাবে নির্বাচিত হয়েছে। ২০১৮ সালেও তারা দিনের ভোট রাতে করেছে। এসব কথা দেশি-বিদেশি সবাই জানে। তারপরও কিভাবে তিনি বললেন, আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে, তখনই দেশে গণতন্ত্রের সুবাতাস বয়েছে। দেশের মানুষ এখন আর প্রধানমন্ত্রীর কথাকে বিশ্বাস করে না।’

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘তারা গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে। মানুষের অধিকার ক্ষুণ্ন করেছে। ডলার লুটপাট করেছে। যার ফলে পণ্য আমদানি করা যাচ্ছে না। তারা ক্ষমতায় থাকলে দেশের অর্থনীতি যে ধ্বংসস্তূপের দিকে যাচ্ছে, এটা আর রক্ষা হবে না। তাই দেশকে রক্ষায় এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে হটাতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘বিএনপির কর্মসূচিগুলোতে জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে গুলি করা হচ্ছে। তারপরও শেখ হাসিনার কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। তিনি নির্দ্বিধায় উচ্চবাচ্য করছেন, অসত্য কথা বলে যাচ্ছেন। এত হত্যাকাণ্ডের পরও সাধারণ মানুষ বিএনপির আন্দোলনে সম্পৃক্ত হচ্ছে। কারণ, মানুষ জেগে উঠেছে ন্যায়ের পক্ষে, গণতন্ত্রের পক্ষে।’

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘ইডেন কলেজের ঘটনা যখন পড়ি, তখন প্রশ্ন জাগে—কোন দেশে আছি? প্রধানমন্ত্রী আপনার কি টনক নড়ে না? গোটা জাতিকে কোন জায়গায় নিয়ে গেছে আপনার ছাত্র সংগঠন?’

গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলনের সভাপতিত্বে ও হান্নান শাহ স্মৃতি সংসদের সদস্য সচিব মজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় স্মরণসভায় আরও বক্তব্য রাখেন—বিএনপির স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল, হান্নান শাহর ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান প্রমুখ।

মেয়া/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়