ঢাকা     বুধবার   ১৯ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৫ ১৪৩১

স্যাংশন নয়, প্রধানমন্ত্রীর মাথাব্যথা সুষ্ঠু নির্বাচন: রিজভী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:২৯, ৪ জুন ২০২৩   আপডেট: ১৬:৩৯, ৪ জুন ২০২৩
স্যাংশন নয়, প্রধানমন্ত্রীর মাথাব্যথা সুষ্ঠু নির্বাচন: রিজভী

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ তাঁতী দলের উদ্যোগে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়েছে

স্যাংশন নয়, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু করাই প্রধানমন্ত্রীর মাথাব্যথা বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী গতকাল বলেছেন, স্যাংশনের বিষয়ে তার কোনো মাথাব্যথা নেই। নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বললেই ওনার মাথাব্যথা বেড়ে যায়, উনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমার জিজ্ঞাসা, আপনি এই দেশটাকে যদি নিজের দেশ মনে করেন, তাহলে আপনার ছেলেকে দেশে রাখেন না কেন? আপনার ছেলে-মেয়ে বিদেশে থাকে কেন? অনেক দেশই তো আপনার বন্ধু দেশ, তাহলে সেসব দেশে আপনার ছেলেকে না রেখে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাখলেন কেন?’

রোববার (৪ জুন) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ তাঁতী দলের উদ্যোগে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪২তম মূত্যবার্ষিকী উপলক্ষে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

রুহুল কবির রিজভী বলেন, আমাদের চলাচল, আমাদের কথা বলা, কোনোটারই স্বাধীনতা নেই। বর্তমান সরকার জনগণের ভোট চুরি করে ক্ষমতায় বসে আছে। সুষ্ঠু নির্বাচনকে অদৃশ্য করে দিয়েছে। এ সরকারকে সরিয়ে গণগন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরকার জনগণকে শত্রু মনে করে বলেই দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন দেয় না। তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠিত হতে দেয় না। নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে দেশের জনগণ সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে পারবে। জনগণ তাকে ভোট দেবে না, এটা জানেন বলেই তিনি এখন নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থাকে সমর্থন করছেন না।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, দেশে এখন যে দুঃশাসন, যা নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে আলোচনা চলছে। এটাকে প্রধানমন্ত্রী তোয়াক্কা করছেন না। যদি তোয়াক্কা করতেন, তাহলে তিনি দেশে সুশাসন চালু করতেন। সুষ্ঠু ভোট দিতেন। গুম-খুন-মামলাসহ বিভিন্ন অন্যায় কাজের সাথে নিজেকে জড়াতে পারতেন না। তার সরকার চৌধুরী আলমসহ বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মীকে গুম ও খুন করেছে অবৈধ শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য।

তিনি বলেন, অবৈধ সরকার অবৈধ বাজেট দিয়েছে। সেটা নিয়ে কথা বলতে চাই না। তবে, শিশুসহ ভিক্ষুক রিকশাওয়ালাদের রক্ত চুষে নিতে বাজেটে কর ধার্য্য করা হয়েছে। কারণ, চিকিৎসাসহ সরকারি সেবা নিতেই এখন থেকে টিআইএন লাগবে। ভিক্ষুক হলেও তাকে ২ হাজার টাকা কর দিতে হবে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ তাঁতী দলের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু আশফাক, তাঁতী দলের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, সদস্য সচিব মজিবুর রহমান, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম, ওলামা দলের নেতা শাহ মো. মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।

মেয়া/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়