ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৫ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ১০ ১৪৩১

বিএনপির রোড মার্চ বৃহত্তর আন্দোলনের প্রস্তুতি: নজরুল 

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৩৯, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩  
বিএনপির রোড মার্চ বৃহত্তর আন্দোলনের প্রস্তুতি: নজরুল 

সরকারের পদত্যাগ, নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে চলমান রোড মার্চ বৃহত্তর আন্দোলনের পূর্বপ্রস্তুতি বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ঝালকাঠিতে বরিশাল-ঝালকাঠি-পিরোজপুর রুটে বিএনপির রোড মার্চের পথসভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এ কথা জানান তিনি।

সকাল সোয়া ১১টায় বরিশালের বেলস পার্ক থেকে শুরু হওয়া রোড মার্চ দুপুর দেড়টায় ঝালকাঠির পেট্রোল পাম্প মোড়ে পৌঁছায়। প্রচণ্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে হাজারো নেতাকর্মী খোলা ট্রাক ও মোটরসাইকেলে চড়ে রোড মার্চে অংশ নেন। রোড মার্চটি ঝালকাঠি হয়ে পিরোজপুরে গিয়ে শেষ হবে। এ রোড মার্চে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান ও সেলিমা রহমান।

নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, মনে রাখবেন, কোনো আন্দোলন বৃথা যায় না। আজকের এই রোড মার্চ আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলন সফল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

তিনি অভিযোগ করেন, আজ মেগা প্রকল্পের নামে দুর্নীতি করে কিছু কিছু মানুষ বড়লোক হয়েছে, কোটিপতি হয়েছে আর সাধারণ মানুষ শেষ হয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশে একটা শিশু জন্মগ্রহণ করে ১ লাখ টাকার মতো ঋণ মাথায় নিয়ে। 

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম খান বলেন, প্রতিটি জিনিসের দাম বেশি। মানুষের জীবন অতিষ্ঠ হয়েছে। 

তিনি বলেন, অনাচারের বিরুদ্ধে কথা বলতে গেলে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট, যা বদল করে করা হয়েছে সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্টে, মামলা দেওয়া হয় এবং গ্রেপ্তার করা হয়। নারী-শিশু-সাংবাদিককে পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয় এবং তাদের শাস্তি দেওয়া হয়। এ অবস্থা থেকে দেশ ও দেশের জনগণকে মুক্ত এবং দেশের ভবিষ্যৎকে রক্ষা করতে আমাদের যুদ্ধ করতে হবে।  

নজরুল ইসলাম খান বলেন, দেশকে মুক্ত করতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, আমাদের নেতা তারেক রহমানের পরামর্শে আমরা বিএনপি ও বাংলাদেশের বিরোধী রাজনৈতিক দল এক দফা দাবিতে আজ আন্দোলনরত আছি। আমরা এই সরকারের পতন চাই। যে সরকার ও সংসদ জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি, সেই সংসদ বাতিল করতে হবে, সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে আমরা নির্দলীয় সরকার গঠন চাই। সেই দাবিতে সারা দেশের মানুষ রোড মার্চ করছে, সভা করছে, মিছিল করছে। 

রোড মার্চে আরও আছেন—বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমর বীর উত্তম, সাবেক বিমান বাহিনীর প্রধান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সারোয়ার, সাবেক এমপি হারুন অর রশিদ সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, কেন্দ্রীয় নেতা আকন কুদ্দুসুর রহমান, মাহবুবুল হক নান্নু, কাজী রওনাকুল ইসলাম টিপু, আবুল হোসেন, নাজিমুদ্দিন আলম, রফিকুল ইসলাম জামাল, এবাদুল হক চান, আবু নাসের মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ, যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম নয়ন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মিল্টন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এস এম জিলানী, সাধারণ সম্পাদক রাজীব আহসান, ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাশেদ ইকবাল খান, সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ।

বরিশাল বিভাগে সাংগঠনিক জেলা বরিশাল উত্তর ও দক্ষিণ জেলা এবং মহানগর, ঝালকাঠি, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর জেলা থেকে বিপুল সংখ্যক বাস, ট্রাক, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল নিয়ে রোড মার্চে অংশ নেন নেতাকর্মীরা। রোড মার্চ শুরুর পর ঝালকাঠি হয়ে পিরোজপুরের দিকে এগিয়ে যায়। বরিশাল থেকে পিরোজপুর যাওয়ার পথে ঝালকাঠিতে পথসভা করা হয়েছে। রোড মার্চ শেষে পিরোজপুর শেয়ালকাঁটা ময়দানে সমাপনী সমাবেশ হবে।

গত ২১ সেপ্টেম্বর বিএনপি কিশোরগঞ্জের ভৈরব থেকে সিলেট অভিমুখে রোড মার্চ করে। আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর খুলনা বিভাগে, ১ অক্টোবর ময়মনসিংহ থেকে কিশোরগঞ্জ, ৩ অক্টোবর ফরিদপুর বিভাগীয় রোড মার্চ, ৫ অক্টোবর কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত রোড মার্চ করবে বিএনপি।

মেয়া/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়