ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

বুকের দুধ বাড়াতে যেসব খাবার খাবেন

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৮ ১০:৩২:০৭ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৮ ১০:৩২:০৭ এএম

শিশুর যথাযথ বিকাশসাধনের জন্য মায়ের দুধের বিকল্প নেই। একারণে শিশুকে নিয়মিত বুকের দুধ খাওয়াতে হয়। শিশু পর্যাপ্ত পরিমাণে বুকের দুধ পাচ্ছে কিনা সেটাও খেয়াল করতে হবে, কারণ স্তন্যপান করানো সকল নারীর স্তনে যে পর্যাপ্ত দুধ থাকবে এমনটা নাও হতে পারে।

বুকে দুধের ঘাটতি দেখে অনেক মা শিশুকে বাজারে প্রচলিত ফর্মুলা কিনে খাওয়ান। কিন্তু কোনো ফর্মুলাই মায়ের দুধের মতো ভালো খাবার হতে পারে না। একারণে শিশু পর্যাপ্ত দুধ না পেলে প্রথমে প্রাকৃতিক উপায়ে স্তনের দুধ বাড়ানো যায় কিনা চেষ্টা করে দেখতে হবে।

এমন কিছু খাবার রয়েছে যা দুধের উৎপাদন বৃদ্ধি করতে উদ্দীপনা সৃষ্টি করতে পারে। এখানে বুকে দুধের পরিমাণ বাড়িয়ে তুলতে পারে এমন কিছু খাবার সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

মেথি বীজ: বুকের দুধের পরিমাণ বৃদ্ধির জন্য একটি প্রাকৃতিক ও কার্যকর উপায় হচ্ছে মেথি বীজ। কিছু গবেষণা বলছে যে, মেথি বীজ বুকের দুধ উৎপাদনে সহায়তা করতে পারে। এই বীজে দুধের উৎপাদন বাড়াতে পারে এমন হরমোন প্রিকারসর রয়েছে, কিন্তু গবেষকরা এখনো নিশ্চিতভাবে জানেন না যে কিভাবে এটা ঘটে। কিছু গবেষক বিশ্বাস করেন যে, স্তন মডিফায়েড সোয়েট গ্ল্যান্ড হওয়ার কারণে মেথি বীজ দুধ উৎপাদনে উদ্দীপ্ত করতে পারে। এই বীজ খাওয়ার ২৪ থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বুকে দুধের পরিমাণ বেড়ে যায়। ২০১৮ সালের একটি রিভিউ গবেষণা মেথি বীজের এ উপকারিতাকে সমর্থন করছে। আপনি মেথি চা পান করতে পারেন অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে মেথি সাপ্লিমেন্ট/ফেনুগ্রীক ক্যাপসুলও সেবন করতে পারেন।

ফল ও শাকসবজি: বেশি করে তাজা ফল ও শাকসবজি খাওয়ার অনেক কারণ রয়েছে, তার মধ্যে অন্যতম উপকারিতা হচ্ছে- এসব খাবার বুকে দুধের পরিমাণ বৃদ্ধিতে অবদান রাখতে পারে। বেবি অ্যান্ড কোম্পানির সিএনএম ডিএনপি মার্গারেট বাক্সটন জানান, ‘কৃষিজাত খাবারে প্রচুর পানি থাকে, তাই আপনি এসব খাবার খেয়ে পানি গ্রহণের পরিমাণ বাড়াতে পারেন। এছাড়া ফল ও শাকসবজি এমন পুষ্টি সরবরাহ করে যা দুধ উৎপাদন করতে শরীরের প্রয়োজন হয়।’ বুকে দুধের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে আপনার সালাদ, স্ন্যাক ও রেসিপিতে বিভিন্ন বর্ণের ফল ও শাকসবজি রাখতে পারেন।

পানি: ডা. বাক্সটন বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়ানো নারীদেরকে প্রচুর পানি পানের পরামর্শ দিচ্ছেন, কারণ স্তন্যপানে মায়ের শরীর থেকে অনেক পানি বেরিয়ে যায়। তিনি বলেন, ‘স্তন্যপানকালে চিনিযুক্ত শরবত অথবা কোমল পানীয়ের পরিবর্তে পানি দিয়ে তৃষ্ণা মেটানো উচিত। এসময় সচরাচরের চেয়ে অতিরিক্ত পানি পান করতে হবে। বাচ্চাকে প্রতিবার বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় এক গ্লাস পানি পানে অভ্যস্ত হোন। আপনি পর্যাপ্ত পানি না খেলে মেথির উপকারিতাও পাবেন না।’

হার্বাল চা: অ্যাক্ট ন্যাচারাল হেলথ অ্যান্ড ওয়েলনেসের নোটারি পাবলিক পাম পিন্টো জানান, ‘অনেক অসুস্থতায় হার্বাল চা পানে উপশম পাওয়া যায় এবং কিছু হার্বাল চা দুধ উৎপাদন ও শক্তির মাত্রা বৃদ্ধি করতে পারে।’ বুকে দুধের পরিমাণ বাড়াতে পারে এমন একটি হার্বাল চা হচ্ছে বিছুটির চা বা নেটল টি। বিছুটিতে উচ্চ মাত্রায় আয়রন থাকে, যা ক্লান্তি দূর করে। এছাড়া এই হার্ব দুধ উৎপাদনেও ভূমিকা রাখতে পারে।

মৌরি: মৌরি সালাদ, মৌরি বীজ, মৌরি স্যূপ ও মৌরি রেসিপি- যেভাবেই খান না কেন, এই হার্বটি ল্যাকটেশন বা দুধের উৎপাদন বৃদ্ধি করতে বিশেষ সহায়ক হতে পারে। নোটারি পাম পিন্টো বলেন, ‘আপনার বুকে দুধের পরিমাণ বাড়াতে চাইলে সালাদে কাঁচা মৌরি যোগ করতে পারেন অথবা অন্যান্য শাকসবজির সঙ্গে রান্না করে খেতে পারেন। ফ্লেভার সমৃদ্ধ এই হার্ব থেকে ল্যাকটেশন বিষয়ক উপকারিতা পাওয়ার আরেকটি উপায় হচ্ছে মৌরি বীজের চা বা ফেনেল সিড টি পান করা।’

গরম মসলা: তরকারিতে ব্যবহারের জন্য একটি জনপ্রিয় উপকরণ হচ্ছে গরম মসলা। গরম মসলা হচ্ছে বিভিন্ন মসলার ব্লেন্ড যা তরকারিতে ব্যবহার করলে খাবারের স্বাদ বেড়ে যায় বহুগুণ। গোলমরিচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, এলাচ, ধনে বীজ, জিরা বীজ, মৌরি বীজ, জায়ফল ও তেজপাতা দিয়ে আপনি নিজেই ঘরে গরম মসলা তৈরি করতে পারবেন। মসলার এই ব্লেন্ড স্বাস্থ্যের বিভিন্ন উপকার করে। এটি শরীরকে উষ্ণ করতে পারে বলে এর নাম দেয়া হয়েছে গরম মসলা। আপনার স্তনে দুধের পরিমাণ বাড়াতে তরকারিতে গরম মসলার পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে পারেন। এনওয়াইসি সার্জিক্যাল অ্যাসোসিয়েটসের সার্জন রায়ান নেইনস্টেইন বলেন, ‘গরম মসলা শরীরে ইস্ট্রোজেনের মতো কাজ করতে পারে। সম্প্রতি গবেষণায় পাওয়া গেছে, মসলার এই ব্লেন্ড দুধের উৎপাদন উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বৃদ্ধি করতে উদ্দীপনা যোগাতে পারে।’

আকুপাঙ্কচারে বুকের দুধ বাড়ে?

কিছু চিকিৎসকের মতে স্তন্যপান করানো নারীদের বুকে দুধের পরিমাণ বাড়াতে আকুপাঙ্কচার সহায়তা করতে পারে। নিউরোপ্যাথিক ফিজিশিয়ান রালফ এসপোজিতো বলেন, ‘স্তনে দুধের পরিমাণ বৃদ্ধির ক্ষেত্রে আকুপাঙ্কচার ভালো কাজ করে। স্মল ইন্টেস্টাইন ১১ নামক একটি পয়েন্ট প্রেগন্যান্সির পর নারীদের প্রোল্যাকটিন লেভেল বা দুধ উৎপাদনে উদ্দীপনা সৃষ্টিকারী হরমোনের মাত্রা বাড়াতে পারে।’

পড়ুন : * যেসব খাবার গর্ভধারণের সম্ভাবনা বাড়ায়

 


ঢাকা/ফিরোজ

     
 
রাইজিংবিডি স্পেশাল ভিডিও