RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শুক্রবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৭ ||  ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

হার্টে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব ফেলে করোনাভাইরাস: গবেষণা

|| রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:০৭, ৩০ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
হার্টে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব ফেলে করোনাভাইরাস: গবেষণা

করোনাভাইরাস হার্টে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব ফেলতে পারে। নতুন গবেষণায় উঠে এসেছে এই তথ্য। জেএএমএ কার্ডিওলজি মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত জার্মানির বিজ্ঞানীদের গবেষণায় বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ রোগ থেকে সুস্থ হওয়া রোগীদের কয়েক মাস পরও হার্টে অস্বাভাবিকতা দেখা গেছে।

ইউনিভার্সিটি অব হসপিটাল ফ্রাঙ্কফুটের বিজ্ঞানীরা ৪০ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১০০ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর ওপর এই গবেষণা পরিচালনা করেছেন। এর মধ্যে এক তৃতীয়াংশ রোগী হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন এবং বাকিরা বাসায় আইসোলেশনে ছিলেন। 

করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার আড়াই মাস পর এই ১০০ জন রোগীর এমআরআই পরীক্ষার ফলাফল, করোনায় কখনো আক্রান্ত হননি এমন ব্যক্তিদের এমআরআই পরীক্ষার ফলাফলের সঙ্গে তুলনা করা হয়। গবেষণায় দেখা যায়, সুস্থ হওয়া ১০০ জন রোগীদের মধ্যে ৭৮ জনের হার্টে অস্বাভাবিকতা রয়েছে ভাইরাসটির দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব হিসেবে। এই ৭৮ জনের মধ্যে ৬০ জনের হার্টের পেশীতে প্রদাহ পাওয়া যায়।

জেএএমএ কার্ডিওলজি মেডিক্যাল জার্নালের সম্পাদক ডা. ক্লাইড ইয়েন্সি বলেন, ‘বিষয়টি দেখার পর আমরা হতবাক হয়েছি।’

হার্টের অস্বাভাবিকতা সাধারণত ইকো পরীক্ষার ধরা পড়ে। তবে ইকো পরীক্ষায় রোগীদের হার্টে এই অস্বাভাবিকতার বিষয়টি ধরা পড়েনি। এমআরআই পরীক্ষার এই গবেষণার ফলাফল ব্যতীত বিষয়টি জানা অসম্ভব ছিল বলে জানান গবেষকরা।

আমেরিকান কার্ডিওলজি  কলেজের সায়েন্স অ্যান্ড কোয়ালিটি কমিটির চেয়ারম্যান ডা. থমাস ম্যাডক্স বলেন, করোনাভাইরাস হার্টে উচ্চ প্রদাহজনক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে ইতিমধ্যে একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে। হার্টের প্রদাহ হৃৎপিণ্ডের পেশী দুর্বল করতে পারে এবং বিরল ক্ষেত্রে অস্বাভাবিক হার্ট বিট হতে পারে। হার্ট ড্যামেজ হওয়ার মূল কারণ হিসেবে পরিচিত প্রদাহ।’ 

ডা. ইয়েন্সি বলেন, ‘কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হওয়ার কয়েক মাস পরও ভাইরাসটির প্রভাবে হার্টের ক্ষতির ঝুঁকি এই গবেষণায় উঠে এসেছে। তবে হার্টের ওপর করোনাভাইরাসে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব নিশ্চিত হতে আরো গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।’

ঢাকা/ফিরোজ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়