Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ০৬ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ২১ ১৪২৭ ||  ২০ রজব ১৪৪২

হাত-পায়ে ঝি ঝি ধরলে যা করবেন

এস এম গল্প ইকবাল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৪৭, ২৭ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৭:১৫, ২৭ জানুয়ারি ২০২১
হাত-পায়ে ঝি ঝি ধরলে যা করবেন

হাতে বা পায়ে ‘ঝি ঝি ধরা’ বিষয়টি নিয়ে আমরা সবাই পরিচিত। সাধারণত পা বা হাতের ওপর লম্বা সময় চাপ পড়লে সাময়িক যে অসাড় অনুভূতি তৈরি হয় সেটিকেই আমরা ঝি ঝি ধরা বলে থাকি।

এই উপসর্গটিকে ডাক্তারি ভাষায় বলা হয় ‘প্যারেসথেসিয়া’। এটিকে ইংরেজিতে ‘পিনস অ্যান্ড নিডলস’ও বলা হয়ে থাকে। শরীরের যে অংশে ঝি ঝি ধরে, সেখানে অসাড়তার পাশাপাশি এমন একটি অনুভূতির তৈরি হয় যেন অসংখ্য সুঁই দিয়ে একসাথে ওই অংশে খোঁচা দেয়া হচ্ছে। তবে সাধারণত কিছুক্ষণের মধ্যেই অসাড়তা এবং খোঁচা লাগার মতো অস্বস্তিকর অনূভুতি চলে গিয়ে স্বাভাবিক অনুভূতি ফিরে আসে।

দীর্ঘক্ষণ বসা বা শোয়ার পর যদি হাত বা পা এমন অবস্থানে বেশ কিছুক্ষণ থাকে যেখানে সেটির ওপর লম্বা সময় ধরে চাপ পড়ে, তখন ঝি ঝি ধরার সম্ভাবনা থাকে। পজিশন পরিবর্তন করলে এ ধরনের অনুভূতি দূর হয়ে যায়, কারণ সংশ্লিষ্ট স্নায়ু চাপমুক্ত হয়। তাই এটাকে ‘টেম্পোরারি প্যারেস্থেসিয়া’ বা ‘সাময়িক ঝি ঝি ধরা’ বলা হয়।

কিন্তু বিভিন্ন কারণে দীর্ঘসময় ঝি ঝি ধরার মতো ঘটনাও ঘটে থাকে। ঝি ঝি ধরা লেগে থাকলে বুঝে নিতে হবে যে শরীরে কোনো অন্তর্নিহিত স্বাস্থ্য সমস্যা বা মেডিক্যাল ডিসঅর্ডার রয়েছে। এটাকে ‘ক্রনিক প্যারেস্থেসিয়া’ বলা হয়। স্বাস্থ্য সমস্যা শনাক্তের পর চিকিৎসা না করলে ক্রনিক প্যারেস্থেসিয়াকে হঠানো যায় না। তাই পজিশন পরিবর্তনেও কাজ না হলে অথবা শারীরিক ভঙ্গি ঠিক থাকার পরও ঝিঁঝিঁ ধরলে চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। এখানে সাময়িক ঝিঁঝিঁ ধরা অথবা অসাড় অবস্থা দূর করার পাঁচটি টেকনিক দেয়া হলো।

* স্নায়ুকে চাপমুক্ত করুন: সংশ্লিষ্ট স্নায়ু থেকে চাপ দূর করলে ঝি ঝি অনুভূতি চলে যাবে। স্নায়ুকে চাপমুক্ত করতে শারীরিক ভঙ্গিতে (যেমন- পায়ের ওপর পা তুলে বসে থাকা অথবা বাহুতে ভার দিয়ে ঘুমানো) পরিবর্তন আনুন। অর্থাৎ যদি মনে হয় যে শারীরিক ভঙ্গির কারণে স্নায়ুতে চাপ পড়েছে, তাহলে পজিশন পরিবর্তন করুন।

* নড়াচড়া করুন: হাঁটলে অথবা নড়াচড়া করলে রক্তপ্রবাহ বাড়বে এবং ঝি ঝি ধরার অস্বস্তিকর অনুভূতি চলে যাবে। পায়ের ওপর পা তুলে বসে থাকলে ধীরে ধীরে হাঁটার চেষ্টা করুন অথবা হাতের ভার সরিয়ে নাড়াচাড়া করুন। এর ফলে রক্তপ্রবাহের স্বাভাবিকতা ফিরে এসে কয়েকমিনিটের মধ্যে ঝি ঝি অনুভূতি দূর হয়ে যাবে।

* হাতকে মুষ্টিবদ্ধ করুন ও খুলুন: আপনার হাতে বা বাহুতে ঝি ঝি ধরলে হাতকে মুষ্টিবদ্ধ করুন ও খুলুন। প্রক্রিয়াটি কিছুসময় পুনরাবৃত্তি করুন। এই ব্যায়ামে দ্রুত রক্তপ্রবাহ বাড়বে ও স্নায়ুগুলো প্রশান্ত হবে। ঝি ঝি অনুভূতি তাড়াতে ব্যায়ামটি বেশ কার্যকর।

* পায়ের আঙুলকে উপর-নিচ করুন: আপনার পায়ে ঝি ঝি ধরলে পায়ের আঙুলগুলোকে নাড়াচাড়া করলে (বিশেষ করে উপর-নিচ করলে) উপকার পেতে পারেন। পায়ের আঙুলগুলোকে উপর-নিচ করলে রক্তপ্রবাহের স্বাভাবিকতা ফিরে আসে অথবা রক্ত চলাচল বাড়ে। এটা পায়ের অসাড় অবস্থা দূর করে।

* মাথাকে এক পাশ থেকে আরেক পাশে ঘোরান: আপনার হাতের বাহুতে ঝি ঝি ধরলে মাথাকে এক পাশ থেকে আরেক পাশে ঘোরালে অস্বস্তিকর অনুভূতি উধাও হবে। তবে কাজটা করতে হবে ধীরে ধীরে। এতে ঘাড়ের স্নায়ুগুলো থেকে চাপ কমে যায়, যার ফলে বাহুর অসাড়তা দূর হয়ে যায়।

ঢাকা/ফিরোজ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়