ঢাকা     রোববার   ১৬ জানুয়ারি ২০২২ ||  মাঘ ২ ১৪২৮ ||  ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ইউরিন ইনফেকশন হলে যা খাবেন, যা খাবেন না

আহমেদ শরীফ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৪৬, ২৪ অক্টোবর ২০২১  
ইউরিন ইনফেকশন হলে যা খাবেন, যা খাবেন না

ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন,সংক্ষেপে আমরা ইউরিন ইনফেকশনও বলি। এই সমস্যাটা অনেকের মাঝেই দেখা যায়। মূত্র সংক্রমণের কারণে তলপেটে ব্যথাসহ বেশ কিছু সমস্যা দেখা দেয়। এই সময় বেশি পানি পান করা,তৈলাক্ত খাবার না খাওয়া,চা-কফি কম খাওয়ার কথা বলেন কেউ কেউ।

তবে দ্রুত চিকিৎসা না নিলে পরিস্থিতি জটিলও হয়ে যায় অনেক ক্ষেত্রে। এই মূত্র সংক্রমণের সময় কোন কোন খাবার বর্জন করবেন ও কোন কোন খাবার খাবেন ,তার একটি তালিকা দিয়েছেন ভারতের উত্তর প্রদেশের নোইডায় অবস্থিত ডিপার্টমেন্ট অব ইউরোলজি অ্যান্ড কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট এর বিশেষজ্ঞ ডা.অমিত কে ডেভরা। তিনি এ সময় যেসব খাবার বর্জন করতে বলেছেন- 

* কফি,অ্যালকোহল ও ক্যাফেইনযুক্ত খাবার বর্জন করতে হবে,যতদিন পর্যন্ত ইউরিনের ইনফেকশন ভালো না হচ্ছে। এসব পানীয় মূত্রাশয়ে সংক্রমণ বাড়াতে পারে। 

* চিনি ও চিনিযুক্ত খাবার বর্জন করতে হবে। কারণ রক্তে চিনির পরিমাণ বেশি থাকলে তা ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশনের ঝুঁকি বাড়ায়। এ কারণে যাদের ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে নেই, তাদের ক্ষেত্রে ইউরিন ইনফেকশন বেশি দেখা যায়। 

* মসলাদার খাবার এড়িয়ে চলতে হবে, কারণ এগুলো মূত্রাশয়ে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ায়। 

* মূত্র সংক্রমণের সময় লেবু, কমলার মতো সাইট্রিক ফল এড়িয়ে চলতে হবে। তবে সংক্রমণ ভালো হলে এই ধরনের সাইট্রিক ফল কিন্তু পরবর্তী সংক্রমণ থেকে আপনাকে রক্ষা করতে পারে। মূত্র সংক্রমণ ভালো হলে পালং শাক, সবুজ কাঁচা মরিচ, আঙুরের রস, স্ট্রবেরি এসব খান বেশি করে। 

ডা.ডেভরা উপরের বেশ কিছু খাবার পরিহারের কথা যেমন বলেছেন,তেমনি মূত্র সংক্রমণ থেকে দ্রুত সেরে উঠতে কোন কোন খাবার খাওয়া উচিত,তা ও বলেছেন। সেগুলো হলো-

* প্রচুর পানি পান করতে হবে, এতে মূত্রাশয় থেকে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া শরীর থেকে বের হয় যাবে।

* জাম খান। কারণ এই ফল ইউরিনারি ট্র্যাক্টে ব্যাকটেরিয়াকে আটকে থাকতে দেয় না, শরীর থেকে সেই ব্যাকটেরিয়াকে বের করতে সহায়তা করে।

* দই খান, কারণ এতে থাকা উপকারি ব্যাকটেরিয়া মূত্রাশয়ের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াকে দূর করতে ভূমিকা রাখে। 

* ক্র্যানবেরি নামের একটি গুল্ম আছে। এর জুসে প্রচুর ফাইটোক্যামিকেল থাকে যা শরীর থেকে ই কোলি ব্যাকটেরিয়া বাইরে পাঠিয়ে দিতে সহায়তা করে। তাই ক্র্যানবেরি জুস পান করতে পারেন।

ঢাকা/ফিরোজ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়