ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৪ ১৪৩১

তফসিল ঘোষণার পরে চায়ের কাপে ঝড় 

এসকে রেজা পারভেজ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪৩, ১৫ নভেম্বর ২০২৩   আপডেট: ২২:৪৮, ১৫ নভেম্বর ২০২৩
তফসিল ঘোষণার পরে চায়ের কাপে ঝড় 

চায়ের দোকান থেকে শুরু করে রাজনৈতিক আড্ডা, সব জায়গায় চলছে নির্বাচনি হিসাব-নিকাশ (ফাইল ছবি)

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তফসিল ঘোষণার পর সারা দেশে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। আলোচনা-সমালোচনা করছেন বিরোধী দলগুলোর নেতাকর্মী এবং সাধারণ জনগণ। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে রাজনৈতিক আড্ডা, সব জায়গায় চলছে নির্বাচনি হিসাব-নিকাশ।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় দ্বাদশ জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। 

তফসিল ঘোষণার পরপরই সারা দেশে তফসিলকে স্বাগত জানিয়ে মিছিল বের করে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো। তফসিল ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে তা ইতিবাচকভাবে নিয়েছে প্রধান বিরোধী রাজনৈতিক দল জাতীয় পার্টি। ১৪ দলের শরিক দল ওয়ার্কার্স পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), সাম্যবাদী দলসহ অন্যান্য দলের নেতারাও তফসলিকে স্বাগত জানিয়েছেন। 

তফসিল ঘোষণার পর বুধবার রাতে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে তাৎক্ষণিক আনন্দ মিছিল বের করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মন্নাফী ও সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবিরের নেতৃত্বে এ মিছিল হয়। এ সময় কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগর কমিটির নেতারাও অংশ নেন। তফসিলকে স্বাগত জানিয়ে ঢাকা-৫ আসনে মিছিল করেছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কামরুল হাসান রিপন। মিছিলটি ধোলাইপাড় থেকে শুরু হয়ে যাত্রাবাড়ীতে এসে শেষ হয়।  

বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে পৃথকভাবে মিছিল করেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মৎস্যজীবী লীগ, কৃষক লীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ। মৎসজীবী লীগের মিছিলের নেতৃত্ব দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শেখ আজগর নস্কর। এসব আনন্দ মিছিল থেকে তফসিলকে স্বাগত জানানো হয়। 

তফসিল ঘোষণার আগেই আনন্দ মিছিল করতে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী জড়ো হন বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ওয়ার্ড ও থানা থেকে নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে আসেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে।

তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচনি আমেজ সাধারণ মানুষের মাঝেও ছড়িয়ে পড়েছে। সারা দেশের মতো রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মানুষের মুখে মুখে এখন নির্বাচন। তফসিল ঘোষণার পর রাজধানীর পল্টন এলাকায় চায়ের দোকানগুলোতে এখন নির্বাচনি আমেজ।

পল্টনের চায়ের দোকানে বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা শাফিন সবুর বলেন, এতদিন নির্বাচন নিয়ে একটা ধোঁয়াশা ছিল। আজ তফসিল ঘোষণার পর তা কেটে গেলো। এখন শান্তিপূর্ণভাবে ভোট আয়োজন করতে পারলে গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।

তফসিল ঘোষণার পরই নিজের পরিকল্পনা ঠিক করে ফেলেছেন সিএনজি অটোরিকশার চালক রহিম তালুকদার। তিনি জানান, ভোটের ১৫ দিন আগে তিনি গ্রামে ফিরে যাবেন। ভোটের সময়ে গ্রামে উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়। চায়েরে দোকানগুলোতে আড্ডা বসে। এগুলো মিস করতে চান না তিনি।  

তফসিল ঘোষণার পর রাজধানীর বাইরে বিভিন্ন জেলা-উপজেলা-ইউনিয়নে আনন্দ মিছিল হয়েছে। সন্ধ্যায় সিরাজগঞ্জে আনন্দ মিছিল করেছে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট কেএম হোসেন আলী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদারের নেতৃত্বে মিছিলটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। জেলার সব উপজেলা ও ইউনিয়নে পৃথকভাবে আনন্দ মিছিল হয়।

কিশোরগঞ্জ জেলার গৌরাঙ্গ বাজার মোড়ে ব্যবসায়ী ও পথচারীদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করেছেন কিশোরগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ডা. জাকিয়া নূর লিপির সমর্থকরা। আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের জেলা সভাপতি মো. শরীফুল ইসলামের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা মিষ্টি বিতরণ করেন। এর আগে শহরের স্টেশন রোড় এলাকায় একটি মিছিল বের করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সন্ধ্যায় আনন্দ মিছিল বের করে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। শহরের বঙ্গবন্ধু স্কয়ার থেকে মিছিলটি বের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রেস ক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও মহিলা আওয়ামী লীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

রাঙ্গামাটিতে শহরের বনরুপা থেকে একটি আনন্দ মিছিলটি বের করে আওয়ামী লীগ। মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক ঘুরে ফের বনরুপা গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আশিষ কুমার চাকমা ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা। 

গাইবান্ধায় আনন্দ মিছিল করেছে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু বকর সিদ্দিকের নেতৃত্বে মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

রাজবাড়ীতে তফসিল ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে আওয়ামী লীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কেরামত আলীর নেতৃত্বে মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবালের নেতৃত্বে একটি আনন্দ মিছিল শহর প্রদক্ষিণ করে। পরে রেলওয়ে জংশনের পার্কিং এলাকায় পথসভা করা হয়।

গাজীপুরে আনন্দ মিছিল ও সমাবেশ করেছে আওয়ামী লীগ। সন্ধ্যায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের সফিপুর এলাকায় গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক মোজাম্মেল হকের নেতৃত্বে মিছিলে অংশ নেন বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী। এসময় তারা নৌকার পক্ষে স্লোগান দেন।

যশোর শহরের আনন্দ মিছিল করে জেলা আওয়ামী লীগ। আনন্দ মিছিলে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, সহ সভাপতি এসএম হুমায়ন কবির উপস্থিত ছিলেন।

 পারভেজ/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়