ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রথমবারের মতো পরমাণুর একজোট হওয়ার ভিডিও ধারণ!

আহমেদ শরীফ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৩ ৯:৪৬:৪৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৩ ৯:৪৬:৪৯ পিএম

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো পদার্থের ক্ষুদ্রতম অংশ- দুটি পরমাণুর একজোট হওয়া ও পৃথক হওয়ার ভিডিও ধারণ করতে সক্ষম হয়েছেন বিজ্ঞানীরা। মানুষের চুলের চেয়েও ৫ লাখ গুণ পাতলা পরমাণুর ভিডিও ধারণ করা সত্যি বিজ্ঞানের জগতে এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

অ্যাডভান্সড মাইক্রোস্কোপি মেথড ব্যবহার করে জার্মানির উলম ইউনিভার্সিটি ও বৃটেনের নটিংহাম ইউনিভার্সিটির গবেষকরা অভূতপূর্ব এই ভিডিও ধারণে সাফল্য দেখিয়েছেন।

পরমাণু দুটো ছিল ০.১ ও ০.৩ ন্যানোমিটার আকারের, যে কারণে সেগুলোকে পাকড়াও করা খুব কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে পড়ে। তাই ট্রান্সমিশন ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপি (টিইএম) মেথডের মাধ্যমে ক্ষুদ্রতম পরমাণু দুটিতে হাই এনার্জি ইলেট্রনের আলো ফেলা হয়, যাতে পরমাণু দুটির গতিবিধি স্পষ্ট হয়ে উঠে।

নটিংহাম ইউনিভার্সিটির প্রফেসর আন্দ্রেই খোলবয়স্টভ জানিয়েছেন, কার্বন ন্যানোটিউব ব্যবহার করে এই ভিডিও ধারণ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে একজোড়া রেনিয়াম পরমাণুকে ফাঁদে ফেলে এই সাফল্য অর্জন হয়েছে। কারণ রেনিয়ামের উচ্চ অ্যাটমিক নাম্বার আছে বলে এর পরমাণু টিএইএম প্রক্রিয়ায় অন্য পদার্থের চেয়ে সহজে দেখা যায়।

ড. খোলবয়স্টভ বলেছেন, দুটি পরমাণুর এক জোট হওয়া, পরে পৃথক হওয়ার এমন নজিরবিহীন ঘটনা আগে কখনো ভিডিও করা সম্ভব হয়নি। এখন এই সাফল্যের পর কোনো পদার্থের অণু কিভাবে গড়ে উঠে, তা জানার চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছেন ড. খোলবয়স্টভ।

গবেষকরা আশা করছেন রাসায়নিক গবেষণাগারে স্পেকট্রোস্কোপিক মেথড এখন যেভাবে ব্যবহার হচ্ছে, তেমনি ভবিষ্যতে কেমিক্যাল রিঅ্যাকশন জানার জন্য ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপি একটি গুরুত্বপূর্ণ মেথড হিসেবেই ব্যবহার করা সম্ভব হবে।




ঢাকা/ফিরোজ