RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৭ ||  ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

ই-কমার্স সেবার মান বজায় রাখার আহবান

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:২৩, ১৯ মে ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
ই-কমার্স সেবার মান বজায় রাখার আহবান

ঈদকে সামনে রেখে ই-কমার্স সেবার মান বজায় রাখার আহবান জানিয়েছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। বিশেষ করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সময়মতো সঠিক পণ্য ডেলিভারি দিতে সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি আহবান জানান ই-ক্যাবের সভাপতি শমী কায়সার ও জেনারেল সেক্রেটারি মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল।

ই-ক্যাবের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে, সকল অনলাইন ব্যবসায়ীদের ঈদ উপলক্ষ্যে ততটা অর্ডার নিতে বলা হয়, যতটা তাদের সক্ষমতার মধ্যে রয়েছে। ঈদের আগে প্রতিটি অর্ডারের ডেলিভারি নিশ্চিত করার আহবান জানানো হয়। করোনা সংক্রান্ত কারণে ই-কমার্স সেক্টরে ব্যাপক ক্ষতির বিষয় উল্লেখ করে বলা হয়, অনলাইন বাণিজ্য সচল রাখতে জরুরি অবস্থাতে খাদ্য, ওষুধ ও নিত্যপণ্যের পর ইলেকট্রনিক্স, পোশাক, তৈরি খাবার এবং বই অনলাইনে বিক্রয় এবং বাসায় ডেলিভারির অনুমতি সংগ্রহ করেছে ই-ক্যাব।’ এর আগে মানুষের পাশে ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিয়ে যাওয়ার জন্য ই-ক্যাবের পক্ষ থেকে সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধন্যবাদ জানান সভাপতি শমী কায়সার।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘এই পরিস্থিতিতে ই-ক্যাবের সদস্য প্রতিষ্ঠানসমূহকে বাড়তি অর্ডার গ্রহণ না করার জন্য অনুরোধ করছি। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান যেন স্টকে থাকা পণ্য এবং ডেলিভারি ক্যাপাসিটির দিকে খেয়াল রেখে পণ্যের অর্ডার গ্রহণ করে। অর্ডারকৃত পণ্য মান বজায় রেখে সময়মতো তা গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেয়ারও অনুরোধ করছি। আশা করি, ঈদের পণ্যগুলো অবশ্যই ঈদের আগে ক্রেতার বাসায় পৌঁছানো নিশ্চিত করবেন। পণ্যের অর্ডারের সময় ক্রেতা যেন ডেলিভারি সময় সম্পর্কে জানতে পারে। সে ব্যাপারে সকল ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।’ রিটার্ণ এবং রিফান্ড পলিসি যেন দৃশ্যমান, স্বচ্ছ, ক্রেতাবান্ধব ও ভোক্তা অধিকার আইনের অনুকূলে হয় এ ব্যাপারে সজাগ থাকার আহবান জানানো হয়।

যেসব শর্তে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ই-কমার্স পণ্য অনলাইনে বিক্রয় ও ডেলিভারির অনুমতি দিয়েছে, সেগুলো এবং স্বাস্থ্য বিধি মেনে নিজেদের ও ক্রেতাদের নিরাপদ রাখার অনুরোধ করা হয়। পরিস্থিতির কারণে কর্মীদের ছাঁটাই না করে কাজে লাগানোরও পরামর্শ দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, করোনার কারণে ই-কমার্স সেক্টরের ৯২ ভাগ উদ্যোক্তার ব্যবসা বন্ধ ছিল। কারণ এই সেক্টরে বেশিরভাগ ব্যবসা পোশাক ও গেজেটভিত্তিক। কিন্তু ই-ক্যাব কর্তৃক বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতির মধ্য দিয়ে ঈদ উপলক্ষ্যে স্টকে থাকা পণ্যগুলো বিক্রি ও ডেলিভারির অনুমতি পায় অনলাইন প্রতিষ্ঠানগুলো। এখনো প্রায় ৮৫ ভাগ ব্যবসা বন্ধ রয়েছে। এছাড়া রমজানের ইফতার ও সাহরির জন্য সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত রেস্টুরেন্ট ফুড ডেলিভারির জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুধুমাত্র রেস্তোঁরা সমূহের কিচেন খোলা রেখে অনলাইনে অর্ডারকৃত খাবার ডেলিভারি দেয়ারও অনুমতি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এ ব্যাপারে সার্বিক প্রচেষ্টা চালায় ই-ক্যাব।

 

ঢাকা/ফিরোজ

রাইজিংবিডি.কম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়