RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ০১ নভেম্বর ২০২০ ||  কার্তিক ১৭ ১৪২৭ ||  ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

স্টার্টআপদের সহায়তায় মাইক্রোসফটের নতুন উদ্যোগ

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫৩, ১৫ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৫:৫৬, ১৫ অক্টোবর ২০২০
স্টার্টআপদের সহায়তায় মাইক্রোসফটের নতুন উদ্যোগ

এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম শক্তিশালী করতে ‘হাইওয়ে টু আ ১০০ ইউনিকর্নস’ উদ্যোগ চালু করেছে মাইক্রোসফট ফর স্টার্টআপস। ভারতে এ উদ্যোগের সফলতার পরে বাংলাদেশে এ উদ্যোগ চালু করা হলো। ভারতে ছয়টি প্রদেশ থেকে মাত্র ৫৬টি স্টার্টআপ ইমার্জ এক্স কর্মসূচির জন্য নির্বাচিত হয়, যেখানে ১৫ হাজারের বেশি স্টার্টআপ রয়েছে। ইমার্জ এক্স বিজয়ীদের বৈশ্বিক বাজারে প্রবেশ সংক্রান্ত নানা সুবিধা দেয়া হয়, যার মধ্যে রয়েছে: বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় মেন্টরদের নিয়ে ফাউন্ডার বুটক্যাম্প, বিনিয়োগ প্রাপ্তির সুযোগ, মেন্টরশিপ এবং আজুর, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, মেশিন লার্নিং ও অন্যান্য বিষয়ের ক্ষেত্রে সহায়তা।  

উদ্ভাবনী উদ্যোগ উৎসাহিত করতে, ভবিষ্যতে সত্যিকার অর্থেই যেসব স্টার্টআপের বৈশ্বিক বিস্তৃতির সম্ভাবনা রয়েছে, প্রযুক্তিবিষয়ক সেসব স্টার্টআপগুলো খুঁজে বের করতেই মাইক্রোসফটের নতুন এই উদ্যোগ।

এ নিয়ে মাইক্রোসফট বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার আফিফ মোহাম্মদ আলী বলেন, “বাংলাদেশে স্টার্টআপগুলোর জন্য সহায়তামূলক ইকোসিস্টেম তৈরিতে মাইক্রোসফটে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশের মতো উদীয়মান বাজার বিশ্বের দ্রুত প্রবৃদ্ধিশীল অর্থনীতির মধ্যে অবস্থান করে নিবে, এক্ষেত্রে ইনোভেটর, ডিসরাপটর এবং ফার্স্ট-মুভার হিসেবে স্টার্টআপগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। আমরা ‘হাইওয়ে টু আ ১০০ ইউনিকর্নস’র মাধ্যমে এ অঞ্চলে স্টার্টআপগুলোর ডিজিটাল উদ্ভাবন ত্বরাণ্বিত করার সুযোগ করে দিবো।”

ইমার্জ এক্স প্রতিযোগিতা

১৬টি দেশের (বাংলাদেশ, ভুটান, ব্রুনাই, ক্যাম্বোডিয়া, ইন্দোনেশিয়া, লাওস, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, মিয়ানমার, নেপাল, নিউজিল্যান্ড, ফিলিপাইন, শ্রীলঙ্কা, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনাম) উদ্ভাবক ও উদ্যোক্তাদের হাইওয়ে টু আ ১০০ ইউনিকর্নস উদ্যোগের অংশ হতে আহবান জানানো হয়েছে।

অংশ নিতে স্টার্টআপগুলোকে প্রথমে তাদের দেশে ইমার্জ এক্স প্রতিযোগিতার জন্য আবেদন করতে হবে। ইমার্জ এক্স প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার মানদণ্ডগুলো হলো: ১. বাজারের চাহিদা বিবেচনায় উপযোগী পণ্যসহ বিজনেস-টু-বিজনেস প্রতিষ্ঠান, মুনাফার জন্য যাদের অন্তত ৩ থেকে ৪টি ক্লায়েন্ট রয়েছে। ২. বড় অংশের গ্রাহকসহ (এক লাখ গ্রাহকের বেশি) মুনাফা অর্জনকারী প্রতিষ্ঠান এবং ৩. ফান্ডিং অতিরিক্ত সুবিধা হিসেবে বিবেচিত হবে। 

মাইক্রোসফট জানিয়েছে, সকল ইমার্জ এক্স স্টার্টআপ গিটহাব ও আজুর ক্রেডিট এবং ব্যবসায়িক ও প্রযিক্তগত কর্মশালার সুযোগ পাবে। দেশ হিসেবে তিন ফাইনালিস্টের নাম নভেম্বরে ঘোষণা করা হবে। এছাড়াও, তারা এক বছরের মেন্টরশিপ, তিন দিনের বেশি ফাউন্ডার বুট ক্যাম্প এবং মাইক্রোসফটের কো-সেল প্রোগ্রামের মাধ্যমে বৈশ্বিকভাবে এন্টারপ্রাইজ ক্লায়েন্টের সুযোগ পাবে, পাশাপাশি মাইক্রোসফটের বিশেষজ্ঞ এবং খাতসংশ্লিষ্ট দক্ষদের সঙ্গে আলোচনার সুযোগ পাবে। 

ইমার্জ এক্স প্রতিযোগিতায় আবেদন প্রক্রিয়া: গ্রোথএনাবলারে আবেদন জমা দিতে ভিজিট https://aka.ms/highwaz। বিবেচিত হতে স্টার্টআপগুলোকে তাদের ৮০ শতাংশ গ্রোথএনাবলার প্রোফাইল সম্পন্ন করতে হবে। ৩১ অক্টোবর ২০২০ তারিখে আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হবে। যেকোনো সহায়তায় যোগাযোগ করা যাবে এই ঠিকানায়: [email protected]। 

ঢাকা/ফিরোজ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়