Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ২৬ জুলাই ২০২১ ||  শ্রাবণ ১১ ১৪২৮ ||  ১৩ জিলহজ ১৪৪২

ছয় ব্যাটসম্যান-পাঁচ বোলারের দলে মুমিনুলের আস্থা

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:২২, ২৫ এপ্রিল ২০২১  
ছয় ব্যাটসম্যান-পাঁচ বোলারের দলে মুমিনুলের আস্থা

‘টেস্ট ক্রিকেটে যদি সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চান মাঝেমধ্যে পাঁচজন বোলার, ছয়জন ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলা উচিত। ছয় ব্যাটসম্যান নিয়ে খেললে সবাইকে একটু বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে। ম্যাচে ২০ উইকেট নিতে হলে ৫ বোলার অবশ্যই দরকার।’-পাল্লেকেলেতে টেস্ট শেষে গণমাধ্যমে কথাগুলো বলছিলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল হক।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ পাঁচ বোলার নিয়ে মাঠে নেমেছিল। একাদশে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল তিন পেসারকে। যা বাংলাদেশ ক্রিকেটে নিকট অতীতে খুব একটা দেখা যায়নি।

উপমহাদেশে তিন পেস বোলার নিয়ে খেলে না বাংলাদেশ। সম্প্রতি ঘরের মাঠে এক পেসার, এমনকি পেসারহীন একাদশও নামিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু পাল্লেকেলের সবুজ ২২ গজ দেখে তিন পেসারে খেলেছেন মুমিনুলরা। তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েদ রাহী ও ইবাদত হোসেনের সঙ্গে নেমেছে স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম।

বাড়তি একজন বোলার নেওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করলেন মুমিনুল, ‘আত্মবিশ্বাস ছিল (পাঁচ বোলার নিয়ে নামার)। কারণ শ্রীলঙ্কার কন্ডিশনে যদি খেলতে যান আমার মনে হয় পাঁচ বোলার সব সময় দরকার। কারণ আল্লাহ না করুক আমরা তো প্রায় দুই মাস পরে খেলছি। (বোলার) কেউ ইনজুরিতে পড়লে বিপদে পড়তে হতো।’

একই সঙ্গে পাঁচ বোলার নিয়ে নামার সুবিধাও পেয়েছেন বোলাররা। তাইজুল যেমন দ্বিতীয় দিন বলেছিলেন, ‘আগের থেকে চাপ কম পড়ছে। বিশ্রাম নিয়ে বোলিং করতে পারছি।’ গতকাল তাসকিন বলেছেন, ‘বাড়তি বোলার সব সময়ই বাড়তি সুবিধা দেয়।’

বোলার বাড়ানো মানে একজন ব্যাটসম্যান কমানো। সাকিব আল হাসান দলে থাকলে ভিন্ন কথা। তবে তার নির্ভরতা বাদ দিয়ে এগিয়ে যেতে হলে ব্যাটসম্যানদের বাড়তি দায়িত্ব নিতেই হবে। কারণ আধুনিক যুগে সব দলই বোলিং আক্রমণে ধার বাড়িয়ে মাঠে নামছে। টেস্ট ড্র করার মানসিকতা থাকে খুব কম দলেরই। মুমিনুল মনে করেন, বড় দলগুলো যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে সাদা পোশাকে বাংলাদেশকেও একইভাবে এগিয়ে যাওয়া উচিত।

তার ভাষ্য, ‘আমার মনে হয় সুবিধা হয়েছে (পাঁচ বোলার নিয়ে খেলায়)। আবার হালকা একটু ঝুঁকি ছিল কারণ আমরা কোনও সময় ছয়জন ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলি না। পাঁচটা বোলার নিয়ে খেলায় কিছুটা লাভ হয়েছে। টেস্টে তাই করা উচিত, বড় দলগুলো সব সময় যা করে।’

একই মাঠে ২৯ এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে। দ্বিতীয় টেস্টেও একই ধারাবাহিকতা থাকবে কি না বলা মুশকিল। তবে মুমিনুল বোলারদের আরও সুযোগ দেওয়ার পক্ষে।

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়