ঢাকা     শনিবার   ২০ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৫ ১৪৩১

সৌদি কিংবা স্পেনে নয়, আমেরিকায় যাচ্ছেন মেসি

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৫৩, ৭ জুন ২০২৩   আপডেট: ২০:২৪, ৭ জুন ২০২৩
সৌদি কিংবা স্পেনে নয়, আমেরিকায় যাচ্ছেন মেসি

ফাইল ছবি

সৌদি আরবের ক্লাব আল হিলাল কিংবা স্পেনের ক্লাব বার্সেলোনায় নয়, লিওনেল মেসি যাচ্ছেন আমেরিকার মেজর লিগ সকারের ক্লাব ইন্টার মায়ামিতে। বিবিসি ও ডেইলি মেইল এমনই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এছাড়া আর্জেন্টিনার সাংবাদিক হের্নান কাস্তিলোও মেসির মায়ামিতে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, লিওনেল মেসির স্ত্রী ও সন্তানেরা সৌদি আরবে থাকতে চান না। অন্যদিকে বার্সেলোনার আর্থিক অবস্থাও ভালো নয়। তাই আমেরিকার ক্লাব ইন্টার মায়ামিকেই বেছে নিয়েছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

এই প্রথম ইউরোপের বাইরের কোনো ক্লাবে খেলতে যাচ্ছেন তিনি। বার্সেলোনায় ২১ বছর কাটিয়েছিলেন। সে সময় কাতালানদের হয়ে ৩৫টি শিরোপা জিতেছিলেন। ২০২১ সালে বার্সেলোনা ছেড়ে দুই বছরের চুক্তিতে তিনি যোগ দিয়ছিলেন পিএসজিতে। দুই বছর পর তার সঙ্গে আর চুক্তির মেয়াদ বাড়ায়নি ফ্রান্সের ক্লাবটি।

পিএসজি ছাড়ার আগেই গুঞ্জন ওঠে রেকর্ড ৪০০ মিলিয়ন ইউরোতে সৌদি আরবের ক্লাব আল হিলালে যোগ দিতে যাচ্ছেন তিনি। এরপর বার্সেলোনায় ফিরে যাওয়ার গুঞ্জনও ওঠে। মাঝে হঠাৎ করে আসে মায়ামির নাম। অবশেষে এশিয়া ও ইউরোপকে পাশ কাটিয়ে আমেরিকা মহাদেশে পাড়ি জমাতে যাচ্ছেন তিনি।

গেল সোমবার মেসির বাবা ও এজেন্ট হোর্হে মেসি বার্সেলোনায় গিয়েছিলেন। সেখানে বার্সার প্রেসিডেন্ট হুয়ান লাপোর্তার সঙ্গে মিটিংও করেছিলেন। মেসি বার্সেলোনায় ফিরতে চানও বলেছিলেন। তখন মনে হয়েছিল মেসি হয়তো আবার কাতালানে ফিরতে যাচ্ছেন। কিন্তু ওই মিটিংয়ের পর পরই মেসি তার সিদ্ধান্ত পাল্টান। আল হিলাল কিংবা বার্সেলোনা নয়, ইন্টার মায়ামিকে বেছে নেন।

আর্জেন্টিনার সাংবাদিক হের্নান কাস্তিলো মেসির মায়ামিতে যাওয়ার বিষয়ে বলেন, ‘মায়ামিই হতে যাচ্ছে মেসির গন্তব্য। তার ভবিষ্যত নিয়ে আর কোনো মিটিং হবে না।’

মূলত পরিবারসহ বেশ কয়েকটি বিষয় চিন্তা করেই সাউদার্ন ফ্লোরিডায় যাচ্ছেন মেসি। প্রথমত, সেখানে তার সম্পত্তি রয়েছে। সেখানে তার নিজস্ব বাড়ি আছে। যেটা বর্তমানে ভাড়া দেওয়া। দ্বিতীয়ত, সেখানকার লাইফস্টাইল তাদের সঙ্গে মানাসই। শুধু তাই নয়, ফ্লোরিডার কালচার লাতিন কালচারের মতোই।

এছাড়া অ্যাডিডাস ও অ্যাপলের মতো বড় ব্র্যান্ডের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পাবেন তিনি।

মেসি অবশ্য ইউরোপে আরও একটি মৌসুম কাটাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ইউরোপের কোনো ক্লাব থেকেই তিনি সন্তোষজনক কোনো প্রস্তাব পাননি। সেক্ষেত্রে তার সামনে বিকল্প ছিল আল হিলাল ও ইন্টার মায়ামি। তিনি মায়ামিকেই বেছে নেন।

ঢাকা/আমিনুল

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়