ঢাকা     শনিবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১২ ১৪৩০

ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ফিল হিউজও মাঠে ছিলেন!

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:২১, ২০ নভেম্বর ২০২৩   আপডেট: ০৯:৩০, ২০ নভেম্বর ২০২৩
ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ফিল হিউজও মাঠে ছিলেন!

ফিল হিউজকে অনেকেরই মনে নেই। না থাকারই কথা। নয় বছর হতে চললো পরপারে পাড়ি জমিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের অমিত সম্ভাবনাময় এই তরুণ। হিউজের বিদায়ের শোক আজও ভুলতে পারেননি তার সতীর্থরা। বিশ্বকাপ ফাইনালেও ফিল হিউজকে সঙ্গী করে মাঠে নেমেছিলেন অস্ট্রেলিয়া দলের দুই খেলোয়াড় মিচেল স্টার্ক ও স্টিভেন স্মিথ।

রোববার (১৯ নভেম্বর) বিশ্বকাপের ত্রয়োদশ আসরে ভারতকে হারিয়ে নিজেদের ষষ্ঠ শিরোপা জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। অজিরা ফিল্ডিংয়ের সময় মিচেল স্টার্ক ও স্টিভেন স্মিথের হাতে কালো বাহুবন্ধনী চোখে পড়ে। সাধারণত কেউ মারা গেলে বা শোক পালনের উদ্দেশ্য এই বাহুবন্ধনী পরা হয়। তবে ফাইনালে এই দুই খেলোয়াড় বাদে আর কেউ এটা পরেননি। তাতে রহস্য আরও ঘনীভূত হয়।

সব রহস্যের সমাধান হয়ে আসে বাহুবন্ধনীতে লেখা দুটো অক্ষর। যেখানে ইংরেজিতে লেখা ছিল ‘পিএইচ’। তাই প্রশ্ন জাগে ‘পিএইচ’ দিয়ে কী বোঝাতে চেয়েছেন তারা। বিষয়টির ব্যাখ্যা দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম ‘দ্য ওয়েস্ট অস্ট্রেলিয়ান’। গণমাধ্যমটি জানিয়েছে, স্টার্ক-স্মিথ বাহুবন্ধনী দিয়ে প্রয়াত অজি ওপেনার ফিল হিউজকে স্মরণ করেছেন। ‘পিএইচ’ হচ্ছে ফিল হিউজের নামের আদ্যক্ষর। 

ফিল হিউজের সঙ্গে দলের অনেকেরই ভালো বন্ধুত্ব ছিল। সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের অন্যতম ছিলেন স্টার্ক ও স্মিথ। মাঠের বাইরেও তাদের ভালো বন্ধুত্ব ছিল। তাই ফাইনালের মহামঞ্চে বন্ধুকে বাহুতে আগলে হৃদয়ে ধারণ করেই খেলতে নামলেন এ দুজন। যেন জানান দিতে চাইলেন, ‘হিউজিও আমাদের সঙ্গে আছে’।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২৬ টেস্ট, ২৫ ওয়ানডে ও ১টি টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন হিউজ। ২০১৪ সালে অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেট শেফিল্ড শিল্ডের খেলাতে নিউ সাউথ ওয়েলসের হয়ে ব্যাট করার সময় শন অ্যাবটের বাউন্সারে ঘাড়ে আঘাত পেয়ে মাঠেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান এই তরুণ সম্ভাবনাময়ী ব্যাটার।

ঢাকা/বিজয়

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়