ঢাকা     শনিবার   ১৮ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪৩১

ম্যাচ শেষে হাত মেলানোতে অপারগতা, রনির মতে এটা ‘তামিমদের ব্যাপার’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:১৩, ২৫ এপ্রিল ২০২৪  
ম্যাচ শেষে হাত মেলানোতে অপারগতা, রনির মতে এটা ‘তামিমদের ব্যাপার’

ক্রিজে থাকা শেষ দুই ব্যাটার রুবেল হোসেন-তাইজুল ইসলাম সবার সঙ্গে হাত মেলালেও প্রাইম ব্যাংকের কোনো ক্রিকেটার মাঠেই আসেননি। ম্যাচ শেষে দুই দলের ক্রিকেটারদের হাত মেলানো অলিখিত নিয়ম হলেও ক্যাচ আউট নিয়ে বিতর্কে মোহামেডানের সঙ্গে এই সৌজন্যতা দেখাননি তামিম ইকবালরা।

ম্যাচ অফিসিয়ালরা মাঠ ছাড়ার আগে তামিম ইকবাল এসে মিনিট কয়েক কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মোহামেডানের অভিজ্ঞ ব্যাটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ম্যাচ শেষে এই বিষয়ের প্রশ্নের মুখোমুখি হন মোহামেডানের ম্যাচসেরা ক্রিকেটার রনি তালুকদার। 

দুই দলের হাত না মেলোনা নিয়ে প্রশ্নে এই ওপেনার ব্যাটার অবশ্য বল ঠেলে দেন তামিমদের কোর্টে, ‘আমরা তো মাঠেই ছিলাম। বাকিটা প্রাইম ব্যাংকের ব্যাপার। এটা উনাদের ব্যাপার। এটা নিয়ে আমার কোন মন্তব্য নেই।’

বৃহস্পতিবার সুপার লিগের দ্বিতীয় ম্যাচে রনির ১৪১ রানে ভর করে ৩১৮ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে মোহামেডান। তাড়া করতে নেমে ২৮৪ রানে থামে প্রাইম ব্যাংক। দ্বিতীয় ইনিংসের ৩৪তম ওভারে বিতর্কের সূত্রপাত। বাউন্ডারি লাইনে ঝাঁপিয়ে পড়ে মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত ক্যাচ ধরেন আবু হায়দার রনি। কিন্তু ডাইভ দিয়ে ওঠার সময় পা লাগে বাউন্ডারি লাইনে। 

রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা গেলেও আম্পায়ার আউট দেন। পরে বিষয়টি মোহামেডানের উপর ছেড়ে দেন। মোহামেডান না মানায় শেষ পর্যন্ত ১০ রানে বিদায় নিতে হয় মুশফিককে। বিষয়টি ভালোভাবে নেয়নি প্রাইম ব্যাংকের ক্রিকেটাররা।

এটা কি সত্যি ক্যাচ হয়েছে? রনির যুক্তি যেহেতু পর্যাপ্ত ক্যামেরা কিংবা তৃতীয় আম্পায়ার নেই সেহেতু এটা নির্ভর করতে হবে ফিল্ডারের ওপর।

‘সেটা তো রনিই ভালো জানে। কারণ রনিই ক্যাচটা ধরেছে। রনির ওপরেই পুরোটা নির্ভর করবে। ও যেই সিদ্ধান্তটা দেবে সেটার ওপরেই…কারণ এখানে তো ওইভাবে ক্যামেরা ছিল না।’

‘থার্ড আম্পায়ার যদি থাকত, তাহলে সেটা ভালোভাবে দেখতে পারত। এখন এটা খেলোয়াড়দের ওপরেই যায়। সেটা আম্পায়ার জানেন। মাঠে আম্পায়ার ছিল। তারা ভালোই জানেন। বললাম তো, রনি যেটা বলবে সেটাই হবে’-আরও যোগ করেন রনি তালুকদার।

রিয়াদ/আমিনুল

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়