ঢাকা, সোমবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

শিশুর প্রথম টিকা শালদুধ

: রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৬-০৮-০৫ ৬:৩৪:০০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৬-০৮-০৫ ৮:৫২:২৭ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : জন্মের কিছু দিন পর থেকে শিশুকে নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত টিকা দেওয়া হয়। ৬ থেকে ১১ মাস বয়সে একটি নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাসে একটি লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়।

 

এ টিকা সরকারিভাবে দেওয়া হয়। কিন্তু যেটিকে শিশুর প্রথম টিকা হিসেবে ধরা হয়, সেটি মা ছাড়া কেউ দিতে পারে না। এটি শালদুধ। এই দুধ শিশুর জন্য খুবই উপকারী।

 

স্বাস্থ্য‍ ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, জাতীয় পুষ্টিসেবা, জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠান ও বাংলাদেশ ব্রেস্টফিডিং ফাউন্ডেশন থেকে ছাপানো প্রচার বইয়ে বলা হয়েছে, শালদুধ রোগ প্রতিরোধের সক্রিয় কোষ, এন্টিবডি ও অন্যান্য প্রতিরক্ষামূলক প্রোটিন সমৃদ্ধ। এটি শিশুর প্রথম টিকা হিসেবে কাজ করে। শালদুধ শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে ও বিভিন্ন সংক্রামক থেকে শিশুকে রক্ষা করে।

 

বইয়ে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ‘শুধু জন্মের এক ঘণ্টার মধ্যে শিশুকে মায়ের দুধ খাওয়ানোর মাধ্যমে ৩১ শতাংশ নবজাতকের মৃত্যু কমে। মায়ের দুধে আছে প্রচুর আমিষ, ভিটামিন-এ, বি-১২, ভিটামিন-ই, জিংক, যা রোগ প্রতিরোধ করে।’

 

তাড়াতাড়ি শালদুধ খাওয়ালে মায়ের গর্ভফুল দ্রুত পড়তে সাহায্য করে, এতে মায়ের রক্তক্ষরণ কম হয়। ফলে মা রক্ত স্বল্পতা থেকে রক্ষা পায়। শিশুর ৬ মাস বয়স পর্যন্ত শুধু মায়ের দুধ খাওয়ালে ওই সময়ে মায়ের গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। পরবর্তীতে মায়ের স্তন ক্যান্সার, জরায়ুর ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ এবং স্থুলতার সম্ভাবনা কমে যায়।

 

শিশুর ৬ মাস বয়স পর্যন্ত শরীর গঠন ও বৃদ্ধির জন্য সব উপাদান মায়ের দুধে থাকে। ফলে শিশুর মানসিক বিকাশ হয়, শিশু বুদ্ধিমান হয় এবং সুস্থ থাকে।

 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৫ আগস্ট ২০১৬/উলফাতুন্নেসা/হাসান/বকুল

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC