ঢাকা, সোমবার, ১০ আষাঢ় ১৪২৬, ২৪ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

তার বিধ্বংসী হওয়ার, দেখিয়ে দেওয়ার মঞ্চ

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-২৩ ৯:২২:৪৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-২৩ ১২:২৭:১৮ পিএম
Walton AC 10% Discount

ওদের হাতে বিশ্বকাপ মশাল। ওদের কাছে ১৬ কোটির প্রত্যাশা। ওরাই স্বপ্নের ধারক। ওরা বাংলার টাইগার। ওরা বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্বপ্নসারথি। ওদেরই একজন লিটন কুমার দাস।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ১৫ খেলোয়াড়কে নিয়ে প্রতিদিন লেখা প্রকাশ করছে রাইজিংবিডি’র ক্রীড়া বিভাগ। আজ পড়ুন লিটন কুমার দাসের গল্প, লিখেছেন আবু হোসেন পরাগ।

‘লিটন কোন মানের খেলোয়াড় সেটি হয়তো একটি-দুটি ম্যাচে আমরা সম্প্রতি দেখতে পেরেছি। এশিয়া কাপ ফাইনালের কথা বলছি আমি। আমার কাছে মনে হয় ও বিশ্বকাপে বিধ্বংসী হয়ে উঠতে পারে। এই সম্ভাবনা ওর মধ্যে আছে’- মাস দুয়েক আগে কথাগুলো বলেছিলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।
 


গত বছর এশিয়া কাপ ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে লিটনের ইনিংসটার কথা মনে আছে নিশ্চয়? দুবাইয়ের ২২ গজে সেদিন তিনি কী দুর্দান্ত ব্যাটিংটাই না করেন। ধ্র্রুপদি সব শটে ১১৭ বলে ১২ চার ও ২ ছক্কায় উপহার দেন ১২১ রানের চোখ জুড়ানো এক ইনিংস।

লিটন ব্যাটসম্যানটাই এমন- যেদিন খেলেন সবাইকে মুগ্ধ হয়ে দেখতে হয়। যার সামর্থ্য নিয়ে কারও কোনো সন্দেহ নেই। হাতে আছে অনেক শট। তবে চরম অভাব রয়েছে ধারাবাহিকতার। তার সামর্থ্যের ঝলকও তাই এশিয়া কাপের ওই ইনিংসটা ছাড়া খুব বেশি দেখা যায়নি এখন পর্যন্ত।

বিকেএসপির ছাত্র লিটন অনূর্ধ্ব-১৫, অনূর্ধ্ব-১৭, অনূর্ধ্ব-১৯ দল পেরিয়ে পা রাখেন জাতীয় দলে। ২০১৫ সালের জুনে তার আন্তর্জাতিক অভিষেক ভারতের বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে। ফতুল্লায় নিজের অভিষেকে নজরও কেড়েছিলেন। করেছিলেন ৪৫ বলে ৪৪ রান। এক মাসের মধ্যে পেয়ে যান ক্রিকেটের সীমিত ওভারের দুই ফরম্যাটের স্বাদও।
 


সময়ের পরিক্রমায় পেরিয়ে গেছে প্রায় চার বছর। নিজের সামর্থ্যের প্রতিফলন আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে কি রাখতে পেরেছেন লিটন? এশিয়া কাপের ফাইনালে সেঞ্চুরি কিংবা দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টে ৯৪ ছাড়া তার আর কোন ইনিংসটাই বা কার মনে আছে!

অথচ ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিতই রানের ফোয়ারা ছোটে তার ব্যাটে। ঘরোয়া ক্রিকেটে রানের বন্যা বইয়ে দিয়েই তো গায়ে জড়িয়েছিলেন বাংলাদেশের জার্সি। কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের প্রতিফলন রাখতে পারেননি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। মাঝে মধ্যে দুই একটা ঝলক দেখা গেছে শুধু।

লিটনের ওয়ানডে ক্যারিয়ার

ইনিংস

রান

গড়

স্ট্রাইক রেট

সর্বোচ্চ

১০০

৫০

২৮

৫৮৪

২১.৬২

৮২.৯৫

১২১

এশিয়া কাপ ফাইনালের আগে ১৭ ওয়ানডে ইনিংসে তার ক্যারিয়ারে কোনো ফিফটিই ছিল না। ফাইনালে সেঞ্চুরির পর জিম্বাবুয়ে সিরিজে খেলেন ৭৭ বলে ৮৩ রানের একটা ইনিংস। এর আগে-পরের দুই ইনিংসে যেতে পারেননি দুই অঙ্কেই।
 


এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজে একটি চল্লিশোর্ধ ইনিংস ছাড়া বলার মতো কিছু নেই। নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে তো আরও নাজুক অবস্থা। ১, ১ এবং ১- টানা তিন ম্যাচে ধারাবাহিকতা ধরে রেখে আউট হন ১ রানে!

দিনাজপুরের এই ক্রিকেটার দেশে ফিরে খেলেন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে। যেখানে মোহামেডানের হয়ে আট ইনিংসে দুটি ফিফটি ছাড়া তেমন কিছু করতে পারেননি। ২৮৭ রান করেন ৩৫.৮৭ গড়ে।

এরপর গেলেন আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে। আইরিশ ‘এ’ দলের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ২৬ রান করার পর মূল টুর্নামেন্টে অবশ্য একটির বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। তবে সেই এক ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেন ৬৭ বলে ৭৬ রানের দারুণ ইনিংস। তাতে তার ছন্দে ফেরার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে ভালোভাবেই।
 


বিশ্বকাপে তামিম ইকবালের উদ্বোধনী সঙ্গী হওয়ার লড়াইয়ে থাকবেন লিটন ও সৌম্য সরকার। বিশ্বকাপে প্রথম পর্বে বাংলাদেশকে খেলতে হবে ৯ ম্যাচ। নকআউট পর্বে যেতে পারলে বাড়বে ম্যাচের সংখ্যাও। একজন খারাপ করলে অন্যজনের সুযোগ আসবেই।

এবারের বিশ্বকাপটা তাই লিটনের জন্য ক্যারিয়ারের গতিপথ পরিবর্তনের বড় উপলক্ষ হয়ে এসেছে। এখন অপেক্ষা শুধু বিধ্বংসী হওয়ার, দেখিয়ে দেওয়ার।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ মে ২০১৯/পরাগ/ইয়াসিন    

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge